কৃষ্ণের রূপে মীর, ইন্টারনেটে সমালোচনার ঝড়

মীর আফসার আলী। মীর মানেই হাসির ফোয়ারা। মীর মানেই ভাবনার বাইরে নতুন কিছু। ‘মীরাক্কেল’ খ্যাত উপস্থাপক হিসেবে পরিচিত তিনি। ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বাংলা টেলিভিশন চ্যানেল জি বাংলার জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘মীরাক্কেল’-এ অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনা মাধ্যমে এতো জনপ্রিয় ওঠেন মীর।

সম্প্রতি মীরকে নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) ছিল শুভ জন্মাষ্টমী। সনাতন ধর্মের মহাবতার ভগবান শ্রীকৃষ্ণের শুভ জন্মতিথি।

জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে এদিন সকাল থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নানারকম পোস্ট করেন তারকারা। সেই তালিকা থেকে বাদ যাননি স্বয়ং মীরও। ইনস্টাগ্রামে কৃষ্ণের সাজে নিজের একটি ছবি শেয়ার করেছেন মীর। যদিও এই কৃষ্ণের এক চোখে চশমা সাঁটা। তার পাশেই আবার রাধারূপী রিমঝিম মিত্র।

ইনস্টাগ্রামে ছবিটি শেয়ার করে মীর লিখেছেন, ট্রোলিং শুরু হোক। একইসঙ্গে মীর লিখেন, এই ছবিটি ২০০৫ সালে তোলা। জি বাংলার হাউ মাউ খাউতে জন্মাষ্টমী স্পেশ্যাল এপিসোডের জন্যই এমন সেজেছিলেন তিনি। তবে মীর নিজেও এখন ছবি দেখে অবাক হন, কীভাবে ওই বেশে এতক্ষণ ছিলেন বলে জানান তিনি।

মীরের করা ওই ছবিটি পোস্টের পরই হাসি ঠাট্টায় ভরে যায় সোশ্যাল মিডিয়া। তবে এখানেই শেষ নয়, ছবি দেখে জেগে ওঠেন হিন্দুত্ববাদীরা। একজন তো লিখেছেন, ‘আমরা হিন্দুরা ধর্ম নিয়ে যথেষ্ট সহিষ্ণু। সেই জন্যই আমাদের দেবদেবী নিয়ে মশকরা আমরা মেনে নিই। এমনকি কোনও অ-হিন্দু ব্যক্তি তা নিয়ে ঠাট্টা করলেও কোনও প্রতিক্রিয়া জানাই না। অন্যান্য ‘শান্তিপূর্ণ’ ধর্মের মতো করি না।’

আরেকজন বলেছেন, এরপর হয়তো হজরত মুহাম্মদ বা যিশুখ্রিস্ট সাজতেও আপনার কোনও আপত্তি থাকবে না।

আরও পড়ুন