গুলশানে গৃহবধূকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যার অভিযোগ

রাজধানীর গুলশানের একটি বহুতল ভবনের সুইমিংপুলের পাশ থেকে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত ওই নারীর নাম ইসরাত জেবিন মিতু (৩০)। তার স্বামী মো. রাতুল আরপি গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) এবং মিতু ওই গ্রুপের পরিচালক ছিলেন।

সোমবার দুপুর পৌনে ২টার দিকে গুলশান-২ এর ৬৯ নম্বর রোডের, ৯ নম্বর বাড়ির সুইমিংপুলের পাশ থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে তার লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে রয়েছে। এদিকে মিতু’র স্বজনরা অভিযোগ করে বলছে মিতুর শ্বশুরবাড়ির লোকজন মিতুকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করেছে।

নিহত মিতুর মামা মাসুদ বলেন, সম্প্রতি স্বামীর সঙ্গে মিতু সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না, এছাড়া শ্বশুরবাড়ির অন্য সদস্যদের সঙ্গেও মনোমালিন্য চলছিল মিতুর। মিতু ছাদ থেকে লাফিয়ে আত্মহত্যা করতে পারে না। এর পেছনে অবশ্যই পারিবারিক বিরোধসহ নানা বিষয় জড়িত। তাকে ছাদ থেকে ফেলে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিরপেক্ষ তদন্ত দাবি করেন তিনি।’

গুলশান থানার এসআই মো. রনি জানান, ‘ভবনটি ১২তলা। আমরা যতটুকু দেখলাম তিনি উপর থেকে নিচে পড়েছেন। কীভাবে পড়েছেন তার তদন্ত চলছে। নিহতের পরিবার এখনও কোনো অভিযোগ করেনি। মিতুর দুই ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে। ঘটনার সময় তার স্বামী বাসায় ছিলেন। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।’

এদিকে গুলশান থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল হাসান বলেন, ‘আমরা খবর পেয়ে গুলশান-২ এর ৬৯ নম্বর সড়কের ৯ নম্বর ভবনের নিচে থেকে ওই নারীর লাশ উদ্ধার করেছি। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, তিনি ছাদ থেকে পড়ে মারা গেছেন। তারপরও তদন্ত করছি। তদন্তের পর বিস্তারিত জানানো হবে। এ ঘটনায় সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টা পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।

 

আরও পড়ুন