গৃহকর্ত্রীসহ থানায় গ্রিলে ঝুলে থাকা সেই গৃহপরিচারিকা

রাজধানীর রমনার সার্কিট হাউস রোডের ‘গাউছিয়া ডাইনেস্টি’র ১০ তলার কার্নিশে গ্রিল ধরে ঝুলে থাকা গৃহপরিচারিকা খাদিজাকে (১৩) উদ্ধারের পর গৃহকর্ত্রীসহ থানায় নিয়ে এসেছে পুলিশ। গৃহকর্ত্রী লাভলী রহমানকে রমনা থানা পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ করছে। গৃহপরিচারিকার পরিবারকেও খবর দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) ১৫ তলা ভবনটির ১০ম তলার বারান্দার কার্নিশে গ্রিল ধরে ঝুলে ছিল কিশোরী খাদিজা। সে ভবনটির ১০তলার বি-১০ নম্বর ফ্ল্যাটে হাবিবুর রহমান ও লাভলী রহমানের বাসায় কাজ করতো। রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘আমরা গিয়ে মেয়েটিকে উদ্ধার করি। মেয়েটির মা নেই। বাবা বিয়ে করে আলাদা থাকে। তাদের গ্রামের বাড়ি সিলেটে। একবছর আগে এই বাসায় সে গৃহকর্মী হিসেবে কাজে আসে। এই বাসায় আরও একজন গৃহকর্মী কাজ করে। তারা নিজেদের মধ্যে কোনও ঝামেলা করে হয়তো মেয়েটি গ্রিলে গিয়েছিল। তবে ভেতরে আর আসতে পারছিল না। আমরা গিয়ে তাকে ভবনের ভেতরে নিয়ে আসি।’

রমনা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমরা অনেকভাবে মেয়েটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি, তাকে কোনও নির্যাতন করা হয়েছিল কিনা? সে কোনও নির্যাতন বা মারধরের কথা স্বীকার করে না। সে কেবল হাসে। আমরা গৃহকর্ত্রীকেও থানায় নিয়ে এসেছি। বড় স্যারেরাও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। মেয়েটি কোনও অভিযোগ করছে না। আমরা তাকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে পাঠিয়েছি। খাদিজার মামা ঢাকায় আসতেছে। তিনি আসলে খাদিজাকে তার কাছে দেওয়া হবে।’

এসময় তিনি আরও বলেন, একটা গ্রিল ভাঙ্গা থাকায় ওপাশে গিয়ে সে আটকা পরে। পরবর্তীতে সে আর আসতে পারেনি। তারপরও আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।

আরও পড়ুন