গৃহবধূকে কুপিয়ে খুনের ঘটনায় ঘাতকসহ আটক ৩

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে বখাটে কর্তৃক গৃহবধূকে কুপিয়ে নির্মম ভাবে হত্যার ঘটনায় থানা পুলিশ ঘাতক সুজন খানকে (২৫) আটক করেছে।

মঙ্গলবার (৩০ জুলাই) সন্ধ্যায় ফরিদগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রকিব প্রেসব্রিফিং করে সাংবাদিকদের ঘাতককে আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

এর আগে তার ভাই সোয়েব খান (২৩), তাদের বন্ধু আমজাদ হোসেন (২৪) কে আটক করে।

তিনি জানান, বিকালে রূপসা উত্তর ইউনিয়নের নারকেল তলার একটি বাগান থেকে পুলিশ তাকে আটক করে।

এর আগে সোমবার রাতে নিহত জাহেদা আক্তার মিশুর মা ছালেহা বেগম বাদী হয়ে ঘাতক সুজন খানসহ পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে ফরিদগঞ্জ থানায় হত্যা মামলা দায়ের করে।

অভিযুক্তরা হচ্ছেন, সুজন খান (২৫), তার ভাই সোয়েব খান (২৩), তাদের বন্ধু আমজাদ হোসেন (২৪) সাদ্দাম হোসেন (২২) ও জুয়েল হোসেন (২৫)।

এরা সবাই ফরিদগঞ্জের চরমুঘুয়া গ্রামের বাসিন্দা। তবে তাদের পুলিশ সোমবার বিকালে সোয়েব খানকে আটকের পর রাতে ঘাতক সুজন খানের বন্ধু আমজাদ হোসেনকে আটক করে।

নিহতের মা সেলিনা আক্তার ও চাচা আহসান উল্লাহ জানান, জাহেদা আক্তার মিশুকে সন্তোষপুর গ্রামের সালামত ব্যাপারীর ছেলে সোহেলের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী সোহেল বিদেশ চলে যান। গত ২ বছর আগে বাবার মৃত্যুর পর মিশু মায়ের সঙ্গে চরমুঘুয়া বাবার বাড়িতেই থাকতেন।

কিন্তু পিতার বাড়িতে তাকে পাশের বাড়ির আবুল বাশার খানের ছেলে সুজন বিভিন্ন সময় কুপ্রস্তাব দিতো। এতে সাড়া না দেওয়ায় গত সোমবার ভোরে সহযোগীদের নিয়ে মিশুদের ঘরে ঢুকে নির্মম এই হত্যাকা- ঘটায়।

আরও পড়ুন