জামালপুরে ৩ লাখ মানুষ পানিবন্দী

জামালপুরের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি এখনো অপরিবর্তিত রয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় যমুনার পানি ৪ সেন্টিমিটার কমে বুধবার বিকালে বাহাদুরাবাদঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ৮২ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও বেড়েছে ব্রহ্মপুত্রসহ শাখা নদীর পানি। পানিবন্দী হয়ে পড়েছে জেলার ৩ লাখেরও বেশি  মানুষ।

যমুনার পানি ৪ সেন্টিমিটার কমলেও ব্রহ্মপুত্র, ঝিনাইসহ শাখা নদীর পানি বৃদ্ধি  অব্যাহত থাকায় জামালপুরের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি অপরিবর্তিত রয়েছে।  নতুন করে জামালপুর সদরের তুলশিরচর, লক্ষীরচর এবং মাদারগঞ্জের চরপাকেরদহ ও কড়ুইচুরা ইউনিয়ন বন্যা প্লাবিত হয়েছে। সবমিলিয়ে ৭ উপজেলার ৪২টি ইউনিয়নের বিস্তীর্ণ এলাকায় বন্যার পানি ঢুকে পড়ায় পানিবন্দী হয়ে পড়েছে ৩ লাখেরও বেশি মানুষ।

পানি উঠায় বন্ধ হয়ে গেছে বিভিন্ন স্থানীয় ও আঞ্চলিক সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। সেইসাথে বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে ১০ হেক্টরের বেশি জমির ফসল। পানিবন্দী অবস্থায় দুর্গত এলাকায় বিশুদ্ধ পানি ও খাদ্যের সংকট দেখা দিয়েছে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ  থেকে এখন পর্যন্ত দুর্গত এলাকায় ৬০ মেট্রিক টন চাল ও নগদ ৫ লাখ টাকা বিতরণ করা হয়েছে।

 

আরও পড়ুন