জালিয়াতি : ৪১ শতক সম্পত্তি ফিরে পেল সরকার

যশোরের কোতোয়ালি থানায় ৪১ শতক অর্পিত সম্পত্তি ফিরে পেল সরকার। এ সংক্রান্ত মামলায় সরকারের আপিল গ্রহণ করে এ রায় দেন প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ। জাল-জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে এই সম্পত্তির নিজের নামে ডিক্রি নিয়ে ছিলেন এক ব্যক্তি।

মামলার বিবরণীতে জানা যায়, যশোরের কোতোয়ালি থানার বকচর মৌজায় ৪১ শতক অর্পিত সম্পত্তি নিজের দাবি করে ১৯৭০ সালের ৩১ ডিসেম্বর সুজায়েত আলী খান নামে এক ব্যক্তি যশোরের তৃতীয় মুন্সেফ আদালতে একটি দেওয়ানি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই বছরের ১৫ মার্চ তার পক্ষে এক তরফা দেয় আদালত। নিন্ম আদালতের এই রায় বাস্তবায়নের নির্দেশনা চেয়ে ২০০৮ সালের ১০ আগস্ট হাইকোর্টে রিট করেন সুজায়েত আলী খানের উত্তরাধিকারী সাদেক আহমেদ নিপুসহ ও অন্যান্যরা। ওই রিটের রায়ে ২০১০ সালে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ অর্পিত সম্পত্তি থেকে অবমুক্ত করে রিট আবেদনকারীগণকে তা বুঝিয়ে দিতে নির্দেশ দেয়। এর বিরুদ্ধে আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। শুনানিকালে এ মামলার বিষয়ে তথ্য চেয়ে যশোর জেলা জজের মহাফেজখানায় চিঠি দেয় অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয়।

ওই চিঠির জবাবে বলা হয়, যশোর ৩য় মুন্সেফ আদালতে ১৯৭১ সালের মার্চ মাসে এক তারিখে ৩টি দেওয়ানি মোকদ্দমা নিষ্পত্তি অন্তে মহাফেজখানায় সংরক্ষণের জন্য রক্ষিত আছে। এরপর ওই মাসে আর কোন মোকদ্দমা সংশ্লিষ্ট আদালত হতে মহাফেজখানায় সংরক্ষণের জন্য প্রেরণ করা হয় নাই। এরপরই প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন বেঞ্চ সরকারের আপিল গ্রহণ করে হাইকোর্ট ও মুন্সেফ আদালতের রায় বাতিল করে দেয়। রাষ্ট্রপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত দেবনাথ।

 

 

আরও পড়ুন