টেক্সাসে শপিংমলে বন্দুকধারীর গুলিতে নিহত বেড়ে ২২

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের এল পাসো শহরে ওয়ালমার্টের একটি সুপার শপিং মলে বন্দুকধারীর এলোপাতাড়ি গুলিতে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২২ জন হয়েছেন। এই ঘটনায় আহত ২৬ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

শনিবার (৩ আগস্ট) স্থানীয় সময় বেলা ১১টার দিকে ‍যুক্তরাষ্ট্র এবং মেক্সিকো সীমান্তে থেকে কয়েক মাইল দুরে এ ঘটনা ঘটে।

মার্কিন গণমাধ্যমে জানা গেছে, ওই হামলার ঘটনায় আহতদের স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এদের কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। টেক্সাস গভর্নর গ্রেগ অ্যাবোটের বরাত দিয়ে বিবিসি অনলাইন এ খবর জানিয়েছে। মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে। খবর বিবিসি ও সিএনএনের।

সন্দেহভাজন হামলাকারী ২১ বছর বয়সী প্যাট্রিক ক্রসিয়াসকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এর আগে, টেক্সাস অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল ১৫ জন নিহত হবার কথা জানিয়েছিলেন। ঘটনার পরপরই মেক্সিকো সীমান্তের একেবারে কাছের শহর এল পাসোর মেয়র জানিয়েছিলেন, সিয়েলো ভিস্তা শপিংমলে অন্তত তিন বন্দুকধারী এলোপাতাড়িভাবে গুলি চালায়। পরে পুলিশ জানায় এক বন্দুকধারী এই কাণ্ড ঘটিয়েছে।

এদিকে সিসিটিভির ফুটেজে ওই হামলাকারীর ছবি পাওয়া গেছে। তাতে দেখা গেছে, কালো টি-শার্ট পরে এ নৃশংস হামলা চালিয়েছেন তিনি। তার কানে প্রটেক্টর ও হাতে ছিল রাইফেল। মার্কিন সম্প্রচার মাধ্যমগুলোও একই ছবি প্রচার করেছে।

এ ঘটনাকে ভয়াবহ উল্লেখ করে টুইট করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। টুইটে আরও জানিয়েছেন সম্পূর্ণভাবে ফেডারেল সরকার থেকে সহায়তা করা হবে।

ক্ষমতায় আসার পর ডোনাল্ড ট্রাম্প ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র শ্বেতাঙ্গদের দেশ’ বলে একটি ধারণা প্রতিষ্ঠা করার চেষ্টা করছেন যেখানে অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর লোকজন অনাহুত। তার গৃহিত নীতির ফলে উগ্র শ্বেতাঙ্গ জাতীয়তাবাদীরা অ-শ্বেতাঙ্গদের বিরুদ্ধে হামলা চালাতে উসকানি পাচ্ছেন বলে বিশ্লেষকরা মনে কর থাকেন।

আরও পড়ুন