তারেক রহমান রাজনীতিতে বিভাজন সৃষ্টি করেছে

সরকারের ভুলত্রুটি সমালোচনা করা বিএনপিসহ সকল বিরোধী দলের কাজ। একথা যেমন সত্য, তেমন প্রাকৃতিক সৃষ্ট কিছু দুর্যোগ মুহূর্তে সরকারকে সহযোগিতা করাও দায়িত্বশীল বিরোধী রাজনৈতিক দলসমূহের কাজ বলে স্মরণ করিয়ে দেন আওয়ামী লীগের সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল।

সম্প্রতি দেশের একটি বেসরকারি টেলিভিশনের টকশো অনুষ্ঠানে বিরোধী দলসমূহের কি কাজ স্মরণ করিয়ে দেন সাবেক ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক।

 

 

তিনি বলেন, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মাস্টার মাইন্ড দুর্নীতির বরপুত্র, লন্ডনে পলাতক খালেদা জিয়ার গুণধর ছেলে তারেক রহমানের নির্দেশেই বাস্তবায়ন করা হয়েছে। তিনি বলেন, পৃথিবীর ইতেহাসে কোথাও এমন নজির নেই, যেখানে বিরোধী দলকে চিরতরে মূল উৎপাটন করতে চেয়েছিল তারেক রহমান। রাজনীতি তখন থেকেই বৈরিতার শুরু।

অসমী কুমার বলেন, ডেঙ্গু সরকার উৎপাদন করেনি। অথচ বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হলো সরকার দেশে ডেঙ্গু এনেছে। এমন নির্লজ্জ মিথ্যাচারের কি মানে হয়? সম্ভবত ২০০০ সালের দিকে ডেঙ্গুর আবির্ভাব বাংলাদেশে। তখন ওই অর্থে মানুষ জানতই না ডেঙ্গুর কথা। তবে সমসমায়িক কালে কিছু প্রভাব পড়েছে। তবে এবারের ন্যায় পরিস্থিতি এতোটা খারাপ হয়নি। সরকারের সকল প্রতিষ্ঠান ডেঙ্গু মোকাবেলায় সর্বাত্মক কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, একথাও মনে রাখতে হবে, ডেঙ্গু একটি বৈশ্বিক সমস্যা। শুধু বাংলাদেশে নয় উন্নয়নশীল প্রায় সকল দেশেই এর প্রকোপ বিরাজমান। বিশেষ করে ফিলিপাইনে ডেঙ্গু মহামারি আকার ধারণ করেছে। আমাদের সরকার এই সংকট মোকাবেলায় বেশ জোরালে ভাবে কাজ করছে। এজন্য মহামারি আকার ধারণ করতে পারেনি। কিন্তু দুর্ভাগ্যের বিষয় হল, আমাদের বিএনপি বন্ধুরা এটি (ডেঙ্গু) নিয়ে রাজনীতি করে যাচ্ছে। রাজনীতি হচ্ছে জনগণের জন্য। জনগণের কি করে মঙ্গল করা যায়, সেদিকে আমাদের নজর দেওয়া উচিত।

অসমী বলেন, আমরা যারা রাজনীতি করি, সকলের উদ্দেশ্য থাকে জনগণের কি করে ভাল হয়। দেশ পরিচালনার সময়ও কিছু ক্রাইসিস মুহূর্ত আসে, এ নিয়ে কোন দলের উচিত না রাজনীতি করা। দুর্ভাগ্য বিএনপি অতীতেও করে এসেছে, এবার ডেঙ্গু নিয়ে রাজনীতি করছে। দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দল হিসেবে বিএনপির কি এমন কাজ করা ঠিক হচ্ছে? আমি ব্যক্তিগত ভাবে মনে করি, এ দুর্যোগ মোকাবিলায় বিএনপিসহ সকল রাজনৈতিক দলসমূহের এগিয়ে আসা উচিত।

আরও পড়ুন