তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে চাকরির সুযোগ চান ১৬তম নিবন্ধনধারীরা

চলমান তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে চাকরির সুযোগ চান ১৬তম নিবন্ধনধারীরা। যদিও করোনার কারণে এই নিবন্ধনকারীদের মৌখিক পরীক্ষা এখনো শেষ হয়নি। করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় গত ৪ এপ্রিল থেকে এদের মৌখিক পরীক্ষা স্থগিত রয়েছে।

তবে ১৬তম নিবন্ধনধারীদের দাবি, তাদের পরীক্ষা শেষ হওয়ার মাত্র সাত দিন বাকি থাকতেই তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়েছে। তাদের এই বিজ্ঞপ্তির বাইরে রাখতেই এই সিদ্ধান্ত ইচ্ছে করেই নেওয়া হয়েছে।

আমিন নামে এক প্রার্থী বলেছেন, ‘১৪তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের দ্বিতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে মৌখিক পরীক্ষা শেষ করেই রেজিস্ট্রেশন নম্বর দিয়ে ১৩তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের সঙ্গে আবেদনের সুযোগ দেওয়া হয়েছিল। ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের যেখানে এক বছর এক মাসের মধ্যে প্রিলিমিনারি, লিখিত, মৌখিক পরীক্ষা শেষ হয়েছিল, সেখানে ১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন প্রার্থীদের প্রায় আড়াই বছর চলে গেল। এখনো মৌখিক শেষ করতে পারছে না এনটিআরসিএ। সরকারি এই প্রতিষ্ঠানের ব্যর্থতার দায়ভার আমরা কেন নেব।’ প্রয়োজনে অনলাইনের মাধ্যমে মৌখিক পরীক্ষা নিয়ে হলেও তাদের তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগের দাবি জানান এই প্রার্থী।

আরও পড়ুন:

বেসরকারি স্কুল-কলেজে ৮০ হাজার পদ শূন্য

 

প্রার্থীদের অভিযোগ, বিগত এক গণবিজ্ঞপ্তি থেকে আরেক গণবিজ্ঞপ্তির পার্থক্য আড়াই বছর। এই গণবিজ্ঞপ্তি না পেলে অধিকাংশ প্রার্থীর বয়স ৩৫-এর বেশি হয়ে যাবে। যার ফলে তাদের শিক্ষক হওয়ার স্বপ্ন আর পূরণ হবে না।

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) ৫৪ হাজার শিক্ষক নিয়োগের তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে। এতে ১ থেকে ১৫তম নিবন্ধনধারী প্রার্থীরা আবেদনের সুযোগ পাবেন। আগামী ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত এই বিজ্ঞপ্তির আলোকে আবেদন করা যাবে। এ পর্যন্ত ৪০ লাখের বেশি আবেদন জমা পড়েছে বলে সূত্র জানিয়েছে।

প্রার্থীরা আরো যেসব দাবি তুলেছে তা হালো—এক মাস সময় বৃদ্ধি করে তাদের তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তিতে আবেদনের সুযোগ, যেহেতু মৌখিক পরীক্ষার নম্বর যোগ হয় না তাই মৌখিক পরীক্ষা দ্রুততম সময়ে সরাসরি বা ভার্চুয়াল মাধ্যমে শেষ করে আবেদনের সুযোগ দেওয়া এবং ১৪তমদের মতো নিবন্ধন সনদের রেজিস্ট্রেশন নম্বর প্রার্থীদের মোবাইল নম্বরে পাঠিয়ে আবেদনের সুযোগ দেওয়া।

এনটিআরসিএ সূত্র জানায়, আর মৌখিক পরীক্ষা শেষ না হওয়ায় ১৬তম নিবন্ধনধারীদের এখনো এতে যুক্ত করা সম্ভব হয়নি, সুযোগ দেওয়া সম্ভবও নয়।

 

আরও পড়ুন