নাকে-মুখে রক্ত আসছে ডেঙ্গু রোগীর

রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ১১নং শিশু ওয়ার্ডের বারান্দায় জায়গা পাওয়া পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র বিজয় জ্বর নিয়ে ভর্তি হয়।

 

ভর্তির দুই দিন পরে ডেঙ্গু ধরা না পড়ার কথা বলে হাসপাতাল থেকে তাকে ছাড়পত্র দেয়া হয়। কিন্তু বাড়ি ফেরার পরদিন শ্বাসকষ্ট শুরু হয়, নাকে-মুখে আসতে থাকে রক্ত। আতঙ্ক নিয়ে আবারও সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয় বিজয়কে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত ১৩৪০ রোগী ভর্তি হয়েছে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে। এরমধ্যে ৯৪৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ভর্তি হয়েছেন ৯৮ জন। সবমিলে এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৩৯৫ জন। এরমধ্যে শুধু ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুই চিকিৎসাধীন ১৫৩।

 

বিজয়ের মা লিপি বেগম জানান, ডেঙ্গু জ্বর বেশি খারাপ হলে নাকি ভেতরে ভেতরে রক্ত ঝড়ে। কিন্তু এভাবে রক্ত বেরিয়ে আসে তা শুনি নি। খুব খারাপ লাগছে। মিরপুর থানাধীন ৬০ ফিট আমতলা এলাকায় আমরা থাকি। গত ৩১ জুলাই এখানেই জ্বরের কারণে ভর্তি করা হয়েছিল বিজয়কে। দুদিন পর স্বাভাবিক জ্বর বলে নরমাল জ্বরের চিকিৎসাপত্র দিয়ে ছাড়পত্র দেয়া হয়। কিন্তু গতকাল রাত থেকে চোখে-মুখে রক্ত আসা শুরু হয়।

সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের নার্স (ইনচার্জ) আনোয়ারা বেগম গণমাধ্যমকে বলেন, ডাক্তার চোখের দেখায় বলেছে ডেঙ্গু রোগী। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। রিপোর্ট আমি দেখিনি। রোগীর দাদা জানালো রিপোর্টে ডেঙ্গু আসছে। প্লাটিলেট কম থাকায় ব্লিডিং হচ্ছে। জরুরি চিকিৎসা চলছে।

আরও পড়ুন