নির্যাতন করেছে তা বলে শেষ করা যাবে না

পারিবারিক অস্বচ্ছলতার কারণে সৌদি আরবে গৃহকর্মীর চাকরি নিয়ে গিয়েছিলেন হবিগঞ্জের গৃহবধূ হোসনা আক্তার (২৪)। মাত্র ২২ হাজার টাকা বেতনের জন্যে সেখানে তাকে সইতে হয়েছে অবর্ণনীয় নির্যাতন। রিয়াদ থেকে একটি ভিডিও করে স্বামীকে জানিয়েছিলেন নিজের দুরবস্থার কথা। অবশেষে দেশে ফিরেছেন হোসনা।

বুধবার (২৭ নভেম্বর) রাতে সৌদি এয়ারলাইনসের বিমানে রিয়াদ হয়ে ঢাকা বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি। হোসনা হবিগঞ্জের আজমিরিগঞ্জ উপজেলার কাকাইলছেও ইউনিয়নের আনন্দপুর গ্রামের শফিউল্লার স্ত্রী। তিনি বলেন, ‘বাড়িতে কাজের কথা বলে আমাকে সৌদি আরবে নিয়ে যে শারীরিক নির্যাতন করেছে তারা তা বলে শেষ করা যাবে না’।

জানা যায়, কোন উপায় না দেখে হোসনার স্বামী ভিডিওটি সোশাল মিডিয়ায় আপলোড করে দেন। পরে তা নজরে আসে ব্র্যাকের মাইগ্রেশন প্রোগ্রামের এক কর্মকর্তার। এরপর ব্র্যাকের তৎপরতায় রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসের শ্রম কল্যাণ উইংয়ের সহায়তায় উদ্ধার পান হোসনা। বর্তমানে তাকে তার পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন