নিহত সেই রোহিঙ্গা ঢাকা থেকে হারানো কার্ডও উঠিয়েছিলেন

কক্সবাজারে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদ ভোটার হওয়ার পর একবার ঢাকায় এসে নির্বাচন কমিশনের এনআইডি শাখা থেকে হারানো কার্ডও উঠিয়েছিলেন বলে সূত্রে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, রোহিঙ্গা নুর মোহাম্মদ প্রথমে অসৎ উপয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদে ভোটার হন। পরে কার্ড হারিয়ে গিয়েছে দেখিয়ে ঢাকার নির্বাচন কমিশনে এসে একটি লেমনেটেড কার্ড উঠিয়ে নিয়ে যান। তখন তাকে কেউ ধরতে পারেনি। তার এলাকায় যখন স্মার্ট কার্ড দেওয়া হয় তখন সে স্মার্ট কার্ড নিয়ে নেন। প্রথমিক ভাবে এসব তথ্য পাওয়া গেছে বলে ইসির এক কর্মকর্তা জানান।

এদিকে জাতীয় পরিচয় নিবন্ধন অনুবিভাগের মহাপরিচালক সাইদুল ইসলাম আজ সাংবাদিকদের বলেন, রোহিঙ্গা ডাকাত নুর মোহাম্মদ ভোটার হওয়ার বিষয়টি আমরা আজই জেনেছি। আমাদেরও প্রশ্ন একজন রোহিঙ্গা ডাকাত কীভাবে ভোটার হলেন? বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য দু-এক দিনের মধ্যেই তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। অপরাধীরা অবশ্যই শাস্তি পাবে। তিনি বলেন কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

জানা যায়, রোববার ভোরে টেকনাফের জাদিমুরা পাহাড়ি এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে নুর মোহাম্মদ নিহত হন। তিনি মিয়ানমারের আকিয়াব এলাকার কালা মিয়ার ছেলে। তিনি কক্সবাজারের টেকনাফের শালবাগান রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বসবাস করছিলেন। বাংলাদেশে তাঁর চারটি বাড়িও রয়েছে। সম্প্রতি তাঁর মেয়ের কান ফোঁড়ানোর অনুষ্ঠানে এক কেজির বেশি স্বর্ণ ও নগদ কয়েক লাখ টাকা উপহার সামগ্রী হিসেবে জমা পড়ে।

ইসি সচিবালয় সূত্র জানায়, নুর মোহাম্মদের কাছে বাংলাদেশের একটি স্মার্টকার্ড আছে। কার্ড নম্বর ৬০০৪৫৮৯৯৬৩। এই কার্ডের তথ্য অনুযায়ী তাঁর নাম ‘নুর আলম’। বাবার নাম কালা মিয়া।

আরও পড়ুন