নোয়াখালীতে ভ্রাম্যমাণ আদালত ৩ হাসপাতালকে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালী জেলা শহর মাইজদিতে ৩টি বেসরকারি হাসপাতালকে নানা অনিয়মের অভিযোগে ৯০ হাজার টাকা জরিমানা ১ জনকে আটক ও ৬টি মামলা দায়ের করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় অভিযানে নিরাময় হাসপাতালকে ৬৫ হাজার শমরিতা হাসপাতালকে ১০ হাজার ও মর্ডান হাসপাতালকে ১৫ হাজার টাকাসহ সর্বমোট ৯০ হাজার টাকা জরিমানা এবং নিরাময় হাসপাতালের ফার্মাসিস্ট দীপন মজুমদারকে লাইসেন্স ছাড়া মরফিন ও প্যাথেডিন রাখার দায়ে আটক করে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. রোকনুজ্জামান খান বলেন, হাসপাতাল গুলোতে ডাক্তার, নার্স না থাকা, টেকনিশিয়ান ছাড়া ল্যাব পরিচালনা, হাসপাতালের অপারেশন থিয়েটার কক্ষ অপরিচ্ছন্ন, ফার্মেসীতে মেয়াদ উত্তীর্ণ ঔষধ বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে সংরক্ষণ, অনুমোদন বিহীন ঔষধ বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ফার্মেসীতে প্রদর্শন, হাসপাতাল-ল্যাব-ফার্মেসী পরিচালনার লাইসেন্স-এর মেয়াদ না থাকার দায়ে এসব হাসপাতালগুলোকে নব্বই হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে এবং মাদকের লাইসেন্স ব্যতীত পেথেডিন ও মরফিন নিজ অধিকারে সংরক্ষণ করার দায়ে আটক করা হয়েছে। নিয়মিত মামলা দায়ের করার জন্য মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের পরিদর্শক নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ রোকনুজ্জামান খান। আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন, জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিনিধি ডা. আরাফাত হোসেন, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক দেবানন্দ সিনহা, ড্রাগ সুপার মোঃ মাসুদ উজ্জামান খান, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ের পরিদর্শক মোঃ আনোয়ারুল হক এবং আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সুধারাম মডেল থানা পুলিশ।

আরও পড়ুন