পাসপোর্ট করতে গিয়ে সাজানো বাবা-মাসহ রোহিঙ্গা কিশোরী আটক

বাংলাদেশি নাগরিক জন্মসনদপত্র নিয়ে অবৈধভাবে পাসপোর্ট করতে গিয়ে সাজানো বাবা-মাসহ এক রোহিঙ্গা কিশোরী আটক হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০১ আগষ্ট) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত রোহিঙ্গা কিশোরীর নাম মরিজান (১৭)। সে কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে থাকেন এবং মিয়ানমারের আরাকান রাজ্যের জাকির মিয়ার মেয়ে। তবে কসবা উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে পাওয়া জন্ম সনদে মরিজানের নাম তানজিনা আক্তার ও বাবার নাম মোখলেছ মুন্সী।

সাজানো বাবা-মা হলেন-ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার বিনাউটি ইউনিয়নের নেমতাবাদ গ্রামের মোখলেছুর রহমান ও আখাউড়া উপজেলার মনিয়ন্দ্র গ্রামের লিপা বেগম।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের সহকারী পরিচালক জামাল হোসেন জানান, ওই রোহিঙ্গা তরুণীর পাসপোর্ট করার জন্য লিপি বেগম নামে এক নারী মোখলেছ মুন্সীকে সঙ্গে নিয়ে পাসপোর্ট অফিসে আসেন। এসময় তরূণীকে মোখলেছ মুন্সীর মেয়ে তানজিনা আক্তার সাজিয়ে তার জন্মসনদ ও জাতীয়তার সদন নিয়ে আসেন। যাচাই-বাছাইয়ের সময় রোহিঙ্গা তরুণীর কথা বার্তা সন্দেহজনক হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন জানান, পাসপোর্ট অফিসের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা তাদের আটক করে নিয়ে আসি। এ ব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন