প্রেমিকসহ নতুন বাসায় উঠার এক মাস না যেতেই অভিনেত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

জনপ্রিয় টেলি অভিনেত্রী পল্লবী দের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কলকাতার গড়ফার একটি ভাড়া ফ্ল্যাটে নিজের প্রেমিকের সঙ্গে থাকতেন পল্লবী। নতুন এই বাসায় উঠার এক মাস না যেতেই তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

সূত্রের বরাত দিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যম বলছে, শনিবার রাতে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন পল্লবী। রবিবার সকালে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে তার প্রেমিক সাগ্নিক চক্রবর্তী পুলিশকে জানান। তবে কী কারণে এই মৃত্যু, সে বিষয়ে কিছেই জানায়নি স্থানীয় পুলিশ।

জানা গেছে, ওই ফ্ল্যাটেই প্রেমিকের সঙ্গে থাকতেন পল্লবী। গত মাসের ২৪ তারিখে ফ্ল্যাটটি নিজেই ভাড়া নিয়েছিলেন পল্লবী দে। মৃত্যুর ঘণ্টাখানেক আগেও সামাজিকমাধ্যমে সক্রিয় ছিলেন তিনি।

 

স্থানীয় কয়েক বাসিন্দার বরাত দিয়ে কলকাতা থেকে প্রকাশিত গণমাধ্যম এই সময় জানিয়েছে, শনিবার রাত থেকেই সাগ্নিক ও পল্লবীর মধ্যে ঝগড়া চলছিল। রবিবার সকালেও থামেনি সে ঝগড়া। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে ঘরের বাইরে যান সাগ্নিক। পল্লবী ছিলেন ঘরের ভেতরেই। সাগ্নিক ফিরে এসে দেখেন ঘরের দরজা বন্ধ। এরপর ধাক্কা মেরে দরজা খুলে দেখেন পল্লবীর ঝুলন্ত মরদেহ।

যদিও ঘটনাস্থল থেকে কোনো রকম সুইসাইড নোট উদ্ধার হয়নি। পল্লবীর শরীরেও কোনো আঘাতের দাগ দেখা যায়নি। মরদেহ পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য। সেই রিপোর্ট হাতে আসার পরই মৃত্যুর সঠিক কারণ জানা যাবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

উল্লেখ্য, ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী ছিলেন পল্লবী দে। একাধিক চ্যানেলের একাধিক সিরিয়ালের মুখ ছিলেন তিনি।প্রেমিকসহ নতুন ফ্ল্যাটে ভাড়া আসার এক মাসও হয়নি, তার আগেই এমন ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা, এই সময় ও আজকাল।

আরও পড়ুন