বঙ্গবন্ধুর স্মরণে জাবিতে মাসব্যাপী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ৪৪তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মাসব্যাপী কর্মসূচির অংশ হিসাবে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সমাপনী আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (৩০) আগস্ট রাত ৯টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের আ ফ ম কামাল উদ্দিন হল ইউনিট ছাত্রলীগের আয়োজনে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভায় শাখা ছাত্রলীগের ত্রাণ ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুল হাসান পরাগের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আ ফ ম কামাল উদ্দিন হলের প্রাধ্যক্ষ ফিরোজ উল হাসান।

এতে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মো. জুয়েল রানা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সভাপতি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু মানেই বাংলাদেশ। যার অবদানে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ পেয়েছি তাকেই হত্যা করেছিল কুচক্রী মহল। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মী নিজেদের জীবনের সকল ক্ষেত্রেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাস্তবায়ন করবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে একটি মহল বিভিন্নভাবে ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আমরা এসব অপপ্রচার আর মেনে নিবো না। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ গঠনে আমরা নিজেদের সর্বাত্মক ভাবে নিয়োজিত রাখব।’

প্রধান অতিথির ভাষণে প্রাধ্যক্ষ ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘আমরা এমনই এক অভাগা জাতি যারা নিজেদের স্বাধীনতার মহা নায়ককে হত্যা করেছিলাম। এরপরেও হত্যাকারীরা বঙ্গবন্ধুর অবদানকে মুছে দিতে পারেনি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মীর মধ্যেই জাগ্রত রয়েছে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের চেতনা। বাংলাদেশের ইতিহাস, ছাত্রলীগের ইতিহাস। বাংলাদেশের সকল আন্দোলনেই ছিল ছাত্রলীগের অবদান। ভবিষ্যতেও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ দেশের পক্ষে সকল কাজে নিজেদের নিয়োজিত রেখে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশর স্বপ্নকে পরিপূর্ণ করবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের পাঠাগার বিষায়ক সম্পাদক মাহবুবুল হক রাফা বলেন, ‘রাষ্ট্রীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যারা স্বাধীন বাংলাদেশকে মেনে নিতে পারেনি তারাই ১৫ আগস্ট এর ঘটনা ঘটিয়েছিল। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুতে সব ফুরিয়ে যায়নি। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর অবদানকে ফুটিয়ে তুলবে এবং তার আদর্শকে জাগ্রত রাখবে।’

বিশ্ববিদ্যালয় হল শাখা ছাত্রলীগের অন্যতম কর্মী মিনহাজুল মোর্শেদ সাদি বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের কোটি মানুষের অহংকার। তার একনিষ্ঠতায় আমরা লাল সবুজের স্বাধীন দেশ পেয়েছে। জাবি ছাত্রলীগ জাতির পিতার অবদানকে কখনই ম্লান হতে দিবে না।

সভার সমাপনী বক্তব্যে মাহমুদুল হাসান পরাগ বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতা বঙ্গবন্ধুর দান। তিনি ছাড়া এদেশ কোনোদিন স্বাধীনতার সূর্য দেখতে পেতো না। দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে চলছে। দেশকে এগিয়ে নিতে আমরা দেশরত্নের সাথে সর্বদা প্রহরীর মতো কাজ করবো।

আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল থেকে আগত ছাত্রলীগের প্রায় তিন শতাধিক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন