বাংলাদেশের জমি চাইল ভারত

আগরতলা বিমানবন্দরকে উন্নত ও বর্ধিত করতে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বাংলাদেশের ভেতরে জমি ব্যবহার করার অনুমতি চেয়েছে ভারত। এবছরের শেষে কিংবা পরের বছরের শুরুতে বিমানবন্দরটিকে আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করার কথা রয়েছে।

ডেইলি স্টার ও নিউ এজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত জুলাই ২০১৮ তে ভারতের তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের বাংলাদেশ সফরের সময় দ্বিপাক্ষিক এক মিটিংএ প্রথম এ প্রস্তাব পেশ করা হয়। এরপর গত এক বছরে একাধিকবার বিভিন্ন মিটিংয়ে এ প্রস্তাব পেশ করেছে ভারত।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় গত অক্টোবরে এর সাথে সম্পৃক্ত অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের সাথে আগরতলা বিমানবন্দর বর্ধিত করতে ভারতকে বাংলাদেশের জমি ব্যবহার করতে দেয়া সম্ভব কিনা তা নিয়ে মিটিং করে। পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক জানান, ‘এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি। এই বিষয়ে কয়েকটি মন্ত্রণালয় জড়িত এবং সবাই একসাথে এই বিষয়ে কাজ করছে।’

তিনি আরও বলেন, অক্টোবর ২০১৮তে হওয়া ঐ মিটিংয়ে উপস্থিত সকলে প্রস্তাবটিকে ভালোভাবে নিয়েছে এতে করে দেশের একটি অংশের যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নত হবে।

তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেন বাংলাদেশ এ বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেনি। তবে ভারত কতটুকু জমি চেয়েছে সে সম্পর্কে কেউই কিছু বলেনি। আগরতলা এয়ারপোর্ট আখাউড়ার চানপুর থেকে এক কিলোমিটারেরও কম দূরত্বে অবস্থিত। কলকাতা ও গুয়াহাটি থেকে আগরতলা বিমানবন্দরে ল্যান্ড কিংবা টেকঅফ করতে বাংলাদেশের আকাশসীমা ব্যবহার করার প্রয়োজন হয়।

৭ আগস্ট ২০১৮ তারিখে এর নাম বদলে মহারাজা বীর বিক্রম এয়ারপোর্ট রাখা হয়।

আরও পড়ুন