বিএনপি হলো কমলাপুর রেলস্টশনের দল: কাদের মির্জা

নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেছেন, বিএনপি হলো কমলাপুর রেল রেলস্টশনের দল, বিভিন্ন দল থেকে এসে এ দলে লোকজন একত্রিত হয়। বুধবার (২০ জানুয়ারি) রাতে বসুরহাট রূপালী চত্বরে সকল ব্যবসায়ী ও পেশাজীবী সংগঠনের সাথে মতবিনিময় অনুষ্ঠানে তিনি বক্তব্য রাখেন।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আলোচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা বলেন, বসুরহাট পৌর নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু নিরপেক্ষ হয়নি প্রমাণ করতে পারলে আমি শপথ নেব না। আমার মামা বিএনপি প্রার্থী কামাল চৌধুরী ভোটের দিন বলেছিলেন নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হচ্ছে। ভোটের পরেরদিন ওনার সাথে দেখা করতে গেলে উনি আমাকে অভিনন্দন জানান। জামায়াত প্রার্থী মোশাররফ হোসাইনও আমাকে অভিনন্দন জানান।

তিনি আরো বলেন, আজ ৩দিন পর আমার মামা কামাল চৌধুরী বললেন ডিজিটাল কারচুপি হয়েছে। জাতীয়ভাবে ছাপ আছে, বাংলাদেশের অন্যান্য জায়গা বিএনপি প্রার্থীরা অভিযোগ করেছে ভোট কারচুপি হয়েছে। তাই আমার মামা সুর পাল্টিয়ে বিএনপি কেন্দ্রীয় নেতাদের ছাপে বলেছেন নির্বাচন কারচুপি হয়েছে। সমবেত ভাইয়েরা এটাকে বলে রাজনীতি। আপনাদের সব কেন্দ্রে সব বুথে এজেন্ট ছিলেন, আমি গিয়ে জিজ্ঞেস করলাম সবার এজেন্ট আছে কিনা? সবাই বলল আছে। এতকিছুই করার পরও নির্বাচনের বিরুদ্ধে মিথ্যা অপবাদ দিয়েছেন।

কাদের মির্জা বলেন, মন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে পানি উন্নয়ন বোর্ডের টেন্ডারবাজি বন্ধের কথা বলায় ওই মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এনামুল হক শামীম আমাকে ফোন দিয়ে বলেছেন, আমি যেন এ বিষয়ে সোনাগাজী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান লিপটনের সাথে কথা বলি। তার মানে তারা আমাকে টাকা দিতে চায়, আমি বলে দিয়েছি এটা রি-টেন্ডার হতে হবে। এরা মন্ত্রীত্ব পেয়ে দেশকে লুটপাট করেছে। এসব কথা বললে আমাকে বলে পাগল, আমি নাকি উন্মাদ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খিজির হায়াত খান, উপজেলা আ. লীগের সাধারণ সম্পাদক নুর নবী চৌধুরী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেল, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি গোলাম ছরওয়ার, সাধারণ সম্পাদক লুৎফুর রহমান মিন্টু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

আরও পড়ুন