বিপিএলের ৭ম আসরের আগেই জন্ম নিচ্ছে নানা বিতর্ক

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) ৭ম আসর শুরুর আগে কথার লড়াইয়ে নেমেছেন সবাই। ফ্র্যাঞ্চাইজি কর্তাদের অভিযোগের অন্ত নেই। পাল্টা জবাব দিতে ভুল করেনি বিপিএল গভর্নিং কাউন্সিলও। অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগের ভিড়ে, আবারও কেন্দ্রবিন্দুতে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন। সব সমাধান যেন তার কাছেই। তবে এবার বিসিবি সভাপতিও অভিযোগের আঙ্গুল তুললেন ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোর দিকে। বললেন, আইন ভাঙ্গছে কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজি। সঙ্গে জানালেন ব্যাবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারিও।

এ ব্যাপের বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সভাপতি নাজমুল হসান পাপন বলেন, আইন বার বার ভঙ্গ করছে দুই একজন সাবাই না। আগামীতে যে নতুন সেশনটা শুরু হচ্ছে এখন থেকে কেউ আইন ভাঙ্গ পারবে না কে। আইন সবার কাছে দেয়া আছে দেওয়া থাকবে সবাইকে ঐটা মানতে হবে।

সবগুলো ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে বৈঠকে বসেছে বিপিএল কমিটি। অধিকাংশ দলের দাবি, বিপিএলের লভ্যাংশের ভাগ চাই তাদের। সেই দাবি একেবারে উড়িয়ে দিলেন বিসিবি সভাপতি।

তিনি বলেন, প্রথম বিপিএল যখন চালু হয় তখন ফ্র্যাঞ্চাইজির কাছ থেকে নেওয়া হত ৮ কোটি টাকা বছরে। আমরা এসে নেই ১ কোটি টাকা। ৭ কোটি টাকা তো দিয়েই দিলাম। তখন যদি লাভ হয় এখন লস হবে কেনো। যাতে অযথা ব্যয় না বাড়ে আমরা সে চেষ্টা করেছি। সবগুলো ফ্র্যাঞ্চাইজি যেন সমান লাভ করতে পারে আমরা সে চেষ্টা করেছি।

তবে প্লেয়ার রিটেইন সহ অন্যান্য দাবি দাওয়া বিবেচনায় নেয়া হবে এমন ইঙ্গিত দিয়ে বিসিবি সাভপতি বলেন, দলগুলোর কথায় আমরা রিটেনশন চালু করেছি। এছাড়া আইন আগের মতই আছে।

বিপিএল মাঠে গড়ানোর আগেই প্রতিনিয়ত জন্ম দিচ্ছে বিতর্ক। বিভিন্ন মহলে আলোচনাও হচ্ছে আদৌ এবার বিপিএল মাঠে গড়াবে কি না এ নিয়ে। তবে বিসিবি সভাপতি বলেছেন যে করেই হোক, এবার বিপিএল আয়োজন করবেই বিসিবি। (সংবাদটি একটি বেসরকারি টেলিভিশনের আলোকে করা হয়েছে।)

আরও পড়ুন