বিশ্বকাপ জয়ের নায়কের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ

বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক বেন স্টোকস। অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অবিশ্বাস্য ব্যাটিং করে ইংল্যাণ্ডকে ১ উইকেটের অকল্পনীয় জয় উপহার দেন। এবারের ২০১৯ বিশ্বকাপের ফাইনাল খেলাটি বিশ্বমঞ্চে স্বরণীয় হয়ে থাকবে। এই শ্বাসরুদ্ধ ম্যাচটি দেখার সময় কোটি ক্রিকেট প্রেমির চোখ ছিল জয়ের নায়ক বেন স্টোকসের দিকে।

তবে এই বেন স্টোকসই বিভিন্ন অপকর্মের কারণে সমালোচিত হওয়ার পাশাপাশি নিষিদ্ধও হয়েছিলেন। আসুন জেনে নেয়া যাক এই নায়কের বিরুদ্ধে যত অভিযোগ রয়েছে।

১. ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে ব্রিস্টলে নাইটক্লাবের বাইরে একজনের ঘুষি মেরে চোখ ফাটিয়ে দেন। যে কারণে ৬ ম্যাচ নিষিদ্ধ হন।

২. কেটি প্রাইসের প্রতিবন্ধী ছেলে হার্ভেকে স্ন্যাপচ্যাটে বিদ্রূপ করায় দুই ম্যাচ নিষিদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি প্রায় ৩০ লাখ টাকা জরিমান দেন।

৩. টেস্ট ম্যাচ চলাকালীন মদ খান? সাংবাদিকের এমন এক প্রশ্নের জবাবে বলেছিলেন ‘খাই’। কেন খান? ‘যথেষ্ট বড় হয়েছি। আমার বয়স ২৬ হল এখন তো আর ১৪ বছরে কিশোর নই। তাছাড়া ডিনারের পর তো আর ডায়েট কোক খেতে পারব না।’

এক রাতে কত পেগ মদ খেতে পারেন? ‘২০ পেগের পর মনে থাকে না।’

৪. গভীর রাতে রাস্তায় পুলিশের সঙ্গে ঝামেলা। যে কারণে জেলে যেতে হয় বেন স্টোকসকে।

৫. ২০১৩ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে মদ্পান করে রাস্তায় মাতাল অবস্থায় ঘুরে বেড়ানোর অপরাধে অস্ট্রেলিয়া থেকে দেশে ফেরত পাঠানো হয় বেন স্টোকসকে।

আরও পড়ুন