বিশ্ব ক্রিকেটকে শাসন করবে বাংলাদেশ

বাংলাদেশের সিনিয়র ক্রিকেটাররা একসাথে খেলতে পারলে দুই থেকে তিন বছরের মধ্যে বিশ্ব ক্রিকেটকে শাসন করতে পারবে বাংলাদেশ। এমনটাই মনে করেন লঙ্কান ফাস্ট বোলার ফারডিজ মাহরুফ। লঙ্কা সফরে সাকিব-মাশরাফির অনুপস্থিতে তরুণদের দায়িত্ব নেওয়ার বড় সুযোগ ছিলো বলে মনে করেন এই পেসার। আর স্প্রীড স্টার তাসকিনকে না খেলোনোয় অবাকও হয়েছে নবাগত এই ধারাভাষ্যকর।

একজন বোলার হয়েও তিনি টাইগারদের কাছে খল নায়ক ব্যাটসম্যান হিসাবে পরিচিত। ২০০৯ সালে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে নবম উইকেটে মুরালিধরনের সাথে জুটি করে টাইগারদের নিশ্চিত জয়টাই ছিনতাই করেছিলেন ফারডিজ মাহরুফ। ১০ বছরের পরিক্রমায় তখনকার সাকিব, তামিমরা এখনও খেলছেন বাংলাদেশ দলে। আর খেলা ছেড়ে মাহরুফ এখন ধারাভাষ্যকার বনে গেছেন।

এক দশক পর বাংলাদেশ দল নিয়ে তার মূল্যায়ন জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, বিশেষ করে মাশরাফি বিন মর্তুজা, সাকিব, মুশফিক, তামিম, মাহামুদুল্লাহরা যদি আরো দুই বছর একসাথে খেলতে পারে। তাহলে যে কোন দলকে তারা অনায়াসে হারাতে পারে। অভিজ্ঞতা একটা বড় ব্যাপার কিন্তু এখন পঞ্চ পান্ডবের দুই জনই দলে নেই। তাহলে দলের সেই অভাবটা মিটাবে কে?

এ ব্যাপারে সাবেক এই শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার বলেন, সুযোগ সব সময় আসে না। যখন কোন সিনিয়র কিংবা ইন ফর্ম ক্রিকেটার একাদশে থাকবে না তখনি সুযোগটা লুফে নিতে হবে। আমি মনে করি সাকিবের অনুপস্থিতে বাংলাদেশী তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য বড় একটা সুযোগ ছিলো।

সাবেক এই লঙ্কান পেসার যে তরুণদের কথা বলছে সেখানে বাংলাদেশী দুই পেসার মুস্তাফিজ ও সফিউল এই সিরিজে ১০টি উইকেট নিয়েছে তবে কার্যকরী বোলিং করতে পারেনি। তাই তো গতিময় একজন ফাস্ট বোলারের অভাব দেখছেন মারুফ

এ ব্যাপারে ফারডিজ মাহরুফ বলেন, বাংলাদেশের বিপিএল কিংবা ডিপিএলে আমি তাসকিনকে কাছ থেকে দেখেছি প্রেমাদাসার এই উইকেটে সে খুবই কার্যকরী হতে পারতো। বিশেষ করে তার বাউন্সটা বেশ দরকার ছিলো বাংলাদেশের জন্য।

আরও পড়ুন