বোরকা পরে মুখ ঢাকা নিষিদ্ধ করল নেদারল্যান্ডস

মুসলিম নারীদের জন্য বোরকা ও নিকাব নিষিদ্ধ করলো নেদারল্যান্ডস। শিক্ষাক্ষেত্র, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, হাসপাতাল ও রাস্তাঘাটে মুখ ঢাকা সমস্ত পোশাক নিষিদ্ধ করা হলো। প্রকাশ্যে যাতে মুখ দেখে চেনা যায়, তার জন্যই এই সিদ্ধান্ত। তবে মুখ ঢাকা নিষিদ্ধ হলেও পোশাক হিসেবে বোরকা পরায় থাকছে না কোনো নিষেধাজ্ঞা।

২০০৫ সালে প্রথম এই আইনের প্রস্তাব করা হয়। ব্যাপক তর্ক-বিতর্ক ও আলোচনার পর ২০১৫ সালে আইনটি পাস করা হয়। ২০১৮ সালের জুন মাসে দেশটির সিনেট এ আইনের অনুমোদন দেয়। এবারে কার্যকর করা হলো এই আইন।

নতুন এই নিয়মে দেশে প্রকাশ্যে কোনো ব্যক্তি ওড়না বা কালো কাপড় দিয়ে মুখ ঢাকলে তার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এই আইন অমান্য করলে জরিমানা দিতে হবে প্রায় ১৫০ ইউরো।

তবে হিজাব ওই নিষেধাজ্ঞার আওতায় আসবে না। গত বৃহস্পতিবার থেকে কার্যকর হওয়া এই আইনের ফলে শিক্ষাক্ষেত্র, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, ভবন,হাসপাতাল ও রাস্তাঘাটে মুখঢাকা কোনো পোশাক পরা যাবে না।

অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের এক বিবৃতিতে জানানো হয়, শুধু নিকাবই নয়, নিষিদ্ধ করা হলো মুখ ঢাকা হেলমেট এবং মাস্কও। দেশের নিরাপত্তার কারণেই জারি করা হলো এই আইন। নিকাব বা বোরকার মুখ ঢাকা অংশ দিয়ে যে কেউ নিজের পরিচয় গোপন করতে পারেন। এর ফলে অপরাধীদের চিহ্নিত করতে পুলিশের সমস্যা হয়। তাই মুখ ঢাকা নিষিদ্ধ করা হলো।

আইনটি কার্যকরের আগে দেশটির সরকারকে ব্যাপক বিরোধিতার মুখোমুখি হতে হয়। কয়েকটি শহরের কর্তৃপক্ষ, হাসপাতাল, গণপরিবহন সংস্থা এবং পুলিশও এই আইনের বিরোধিতা করে।

আরও পড়ুন