মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ নিয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের উদ্বেগ

মার্কেন্টাইল কো অপারেটিভ সোসাইটির কর্মকাণ্ডে উদ্বিগ্ন খোদ ব্যাংক খাতের নিয়ন্ত্রক সংস্থা, বাংলাদেশ ব্যাংক। বারবার সতর্ক করার পরও আমলে না নেয়ায়, প্রতিষ্ঠানটি পরিদর্শনে যেতে চায় যৌথ প্রতিনিধি দল। আমানত-স্থিতি, বকেয়া, ঋণ পরিস্থিতি, গ্রাহকরে পাওনা, ব্যাংক শব্দ যুক্ত করাসহ জানতে চাওয়া হবে নানা বিষয়। মার্কেন্টাইল নিয়ে সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকে বৈঠকে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এদিকে, সমবায় প্রতিষ্ঠানটিতে নিরীক্ষা পরিচালনার জন্য কমিটি গঠন করেছে সমবায় অধিদপ্তর।

ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ এর ৩১(১) ধারার বিধান লঙ্ঘন করে ব্যাংকিং কার্যক্রম পরিচালনার প্রেক্ষিতে দি মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ সোসাইটিজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণে পৃথক কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ২৪ জুলাই অনুষ্ঠিত হয় সেই কমিটির বৈঠক। যেখানে মার্কেন্টাইলের কর্মকাণ্ড নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়। বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগের (বিআরপিডি) মহাব্যবস্থাপক এ কে এম মহিউদ্দিন আজাদকে আহবায়ক করে গঠিত কমিটির বৈঠকে সার্বিক দিক তুলে ধরা হয়। কমিটি মার্কেন্টাইল সম্পর্কে পর্যালোচনাসহ অবৈধ ব্যাংকিং কার্যক্রমের সুষ্পষ্ট তথ্য সংগ্রহ করবে এবং ব্যাংক কোম্পানি আইন ব্যত্যয় করায় পত্রিকায় ঘোষণা দেবার পর পরিণতি পর্যালোচনা এবং করণীয় নির্ধারণে আগামী দুই মাসের মধ্যে সুপারিশ দেবে।

বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র জানায়, সতর্ক করার পরও তা কর্ণপাত না করায় বৈঠক থেকে সমবায় প্রতিষ্ঠানটিতে পরিদর্শনের সিদ্ধান্ত হয়। বাংলাদেশ ব্যাংক, সমবায় অধিদপ্তরসহ নানান প্রতিষ্ঠানের সমন্বয়ে গঠিত অডিট টিম সার্বিক দিক পর্যালোচনা করবে। এদিকে, আগে প্রতিষ্ঠানটিতে নিরীক্ষা হলেও, গেল বছর তা করা সম্ভব হয়নি। সবশেষ ২০১৬-১৭ অর্থবছরে নিরীক্ষা হয়। তবে, নতুন করে নিরীক্ষার জন্য কমিটি গঠন করেছে সমবায় অধিদপ্তর।

সমবায় অধিদপ্তরের অতিরিক্ত নিবন্ধক আহসান কবির জানান, মামলার কারণে এই প্রতিষ্ঠানের নিয়ন্ত্রণ নেয়া সম্ভব হচ্ছে না। তবে, বারবার সতর্ক করছে সমবায় অধিদপ্তর এবং বাংলাদেশ ব্যাংক। পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সাধারণ মানুষকে এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে লেনদেনে সতর্ক করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নিয়ন্ত্রক এই সংস্থার এক কর্মকর্তা জানান, বাংলাদেশ ব্যাংকও প্রতিষ্ঠানটির কর্মকাণ্ডে উদ্বিগ্ন।

বিআরপিডির মহাব্যবস্থাপক এ কে এম মহিউদ্দিন আজাদ বলেন, সমবায় অধিদপ্তরের সঙ্গে যৌথ পরিদর্শন টিম গঠন হলে সেখানে বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিনিধি কবে। প্রয়োজন হলে যৌ কমিটি প্রতিষ্ঠানটির খুটিনাটি জানতে মাকেন্টাইলের কার্যালয় পরিদর্শনে যাবে।

এ বিষয়ে জানতে মার্কেন্টাইল কো-অপারেটিভ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করলেও কারো পাওয়া যায়নি।

আরও পড়ুন