মিরপুরে লঙ্কানদের বিপক্ষে তিন পেসারও খেলতে পারে : মুমিনুল

আগামীকাল সোমবার মিরপুর শেরে-ই-বাংলা ক্রিকেট স্টেডিয়ামে শুরু হবে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের মধ্যকার সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট। সিরিজের শেষ ম্যাচে সফরকারীদের বিপক্ষে তিন পেসার খেলতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক।

ঢাকা টেস্টে দলের পেসার নিয়ে রবিবার মিরপুরে সংবাদ সম্মেলনে মুমিনুল হক বলেন, ‘আমি জানি না আমি অধিনায়ক হওয়ার পর আপনারা এক পেসার পেয়েছিলেন কি না। মনে হয় না এক পেস বোলার খেলবে। এমনও হতে পারে ৩ জনও খেলতে পারে।’

বাংলাদেশ দলকে অনেকবারই দেখা গেছে এক পেসার নিয়ে টেস্ট খেলতে। বিশেষত মিরপুরের মতো স্পিন সহায়ক উইকেটের সুবিধাটা নিতে এমন করা হয়।

 

ইনজুরির কারণে দলের সাথে নেই পেসার তাসকিন আহমেদ ও শরিফুল ইসলাম। তাদের  জায়গায় যারা খেলবেন, তাদের প্রতিও আস্থা রাখছেন বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক।

তিনি বলেন, ‘আপনি কোনো একটা জিনিস শুরু করলে মাঝেমাঝে এমন বাধাবিপত্তি আসতে পারে। তাসকিন যতদিন খেলেছে খুব ভালো বল করেছে। সঙ্গে শরিফুলও ভালো অবদান রেখেছে টেস্ট দলে। ওদের জায়গায় যারা খেলবে তাদের জন্য এটা বিরাট সুযোগ।’

মুমিনুল হক জানান, টেস্ট অধিনায়ক হিসেবে আমি চাই আমার এক ঝাঁক পেসার থাকুক, স্বাস্থ্যকর প্রতিযোগিতা হোক। তাই এটা আমার জন্যও সুযোগ। ভবিষ্যতে টেস্ট দলের জন্য কী করতে পারবে, কীভাবে উন্নতি করতে পারবে এসব আমিও দেখে নিতে পারব।’

চট্টগ্রাম টেস্টে ছিলেন না পেসার এবাদত হোসেন। নিউজিল্যান্ডে জয়ের নায়ক ছিলেন তিনি, দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতেও খুব একটা খারাপ করেননি। তাসকিন-শরিফুল না থাকায় খেলার সম্ভাবনা বেড়েছে তার। এবাদতের ব্যাপারে আশাবাদী মুমিনুলও।

এদিকে, মেহেদী হাসান মিরাজ ও নাঈম হাসানের ইনজুরিতে দলের হয়ে খেলার সম্ভাবনা মোসাদ্দেক হোসেনের। তবে মোসাদ্দেকের খেলার শতভাগ নিশ্চয়তা দিচ্ছেন না অধিনায়ক মুমিনুল হক। স্পিন বিভাগের প্রতি নিজের আস্থার কথা জানিয়েছেন তিনি। সঙ্গে জানিয়েছেন, মোসাদ্দেক খেললে খেলবেন ভিন্ন ভূমিকায়।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষ পাঁচ সিরিজের চারটিই হেরেছে বাংলাদেশ দল। সেই চার সিরিজেই ড্র হয়েছে একটি ম্যাচ, বাংলাদেশ হেরেছে অন্যটি।

আরও পড়ুন