মির্জাপুরে ৫২ ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ডেঙ্গুর দ্রুতগতিতে ছড়াচ্ছে। তবে মির্জাপুরে যেসব ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছেন তাদের অধিকাংশ রাজধানী ঢাকা থেকে এসেছেন। এ উপজেলায় ৫২ জন ডেঙ্গু রোগী পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে চিকিৎসক-শিক্ষক রয়েছেন। বিভিন্ন এলাকা, ক্লিনিক-হাসপাতাল এবং কুমুদিনী হাসপাতালে তারা চিকিৎসা সেবা নিচ্ছে বলে জানা গেছে।

এদিকে কুমুদিনী হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, ডেঙ্গু জ্বর প্রথমে রাজধানী ঢাকায় দেখা দিলেও এখন মফস্বলে ছড়িয়ে পড়েছে। উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে এখন পর্যন্ত ৫২ জন রোগী ডেঙ্গু রোগী পাওয়া গেছে। যারা হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি হয়েছেন তাদের বেশির ভাগ রোগী রাজধানী ঢাকা থেকে আসা।

ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্তদের বিভিন্ন ওয়ার্ডে মশারির ভিতরে রেখে চিকিৎসা সেবা চলছে। হাসপাতালের বর্হিবিভাগ ও ভিতরে রোগী ও স্বজনদের উপচেপরা ভিড় দেখা গেছে। রোগীদের মধ্যে কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজের তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রী এবং এক স্কুলশিক্ষক রয়েছেন।

 

রোগীদের চিকিৎসা সেবা দেয়ার বিষয়ে কুমুদিনী হাসপাতালের এজিএম (অপারেশন) অনিমেশ ভৌমিক লিটন ও শিশু বিভাগের ডা. ফাতেমা মকবুল বলেন, ডেঙ্গু রোগীদের সঠিক ভাবে চিকিৎসা দিতে চিকিৎসক, নার্সরা একযোগে কাজ করে যাচ্ছেন। কুমুদিনী হাসপাতালের পরিচালক ডা. প্রদীপ কুমার রায় ও কুমুদিনী উইমেন্স মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. এমএ হালিম বলেন, হাসপাতালের পক্ষ থেকে রোগীদের সেবা দেওয়ার জন জরুরিভাবে বিভিন্ন পদক্ষেপ হাতে নেওয়া হয়েছে।

ডেঙ্গু প্রতিরোধের বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক বলেন, ডেঙ্গু প্রতিরোধের জন্য এবং জনসাধারণ যাতে সু-চিকিৎসা পান সেজন্য প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকদের সার্বক্ষণিক তদারকির ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন