মোহাম্মদপুরে সাবেক স্বামীর হাতে স্ত্রী খুন

রাজধানীর মোহাম্মদপুরে সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে ঝর্ণা আক্তার (২৬) নামের এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার পর থেকে পলাতক আছেন ঝর্ণার সাবেক স্বামী সোহাগ।

শুক্রবার ভোরে মোহাম্মদপুরের রায়ের বাজারের মেকআপ খান রোড এলাকায় এ হত্যাকাণ্ড ঘটে।

এ বিষয়ে মোহাম্মদপুর থানার ওসি আবদুল লতিফ বলেন, ঝর্ণা এক মাস আগে সোহাগকে তালাক দেন। তার আগে এ দম্পতি মোহাম্মদপুরের মেকআপ খান রোডের একটি পুরাতন একতলা বাড়িতে থাকতেন। তালাক দেয়ার পর ঝর্ণা ওই বাসায় থাকছিলেন। তার সঙ্গে ওই বাসায় থাকতেন মা এবং ১০ ও চার বছর বয়সী দুই কন্যা সন্তান। সোহাগ চলে যান পাশেই নিজের মা-বাবার বাসায়।

ওসি বলেন, শুক্রবার ভোর ৫টা থেকে ৬টার মধ্যে ঝর্ণার বাসায় গিয়ে শিল (মশলা বাটার যন্ত্র) দিয়ে মাথায় আঘাত করেন সোহাগ। পরে শরীরের বিভিন্ন স্থানে তাকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে পালিয়ে যান তিনি। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিল ও রক্তাক্ত ছুরি জব্দ করে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। সোহাগকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

সোহাগের বাড়ি মাদারীপুরের শিবচরে। আর ঝর্ণার বাড়ি বরিশালের মুলাদীতে। এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে। ঘটনার বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে জানিয়ে ওসি আবদুল লতিফ বলেন, ভোরে ঝর্ণা বাথরুমে গিয়েছিলেন। বাথরুম থেকে বের হতেই তার ওপর হামলা চালানো হয়। হামলায় তার পেট, পিঠ এবং কপালসহ শরীরের বিভিন্ন স্থান আঘাতপ্রাপ্ত হয়। হাসপাতালে নেয়ার আগেই তার মৃত্যু হয়।

 

আরও পড়ুন