যে কারণে থানায় জিডি করলেন ফারিয়া !

চ্যানেল আইতে শুরু হয়েছে রিয়েলিটি শো জনপ্রিয় গোয়েন্দা চরিত্র মাসুদ রানার খোঁজে ২ আগস্ট থেকে। শুরুতেই এই উদ্যোগ নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। অনুষ্ঠানের একাধিক ক্লিপ ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে। যাতে প্রতিযোগীদের স্টাইল-ফ্যাশনসহ নানা বিষয়ে কটূক্তি ও তামাশা করেছেন বিচারকরা, যা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নিন্দার ঝড় উঠেছে।

এই ঘটনায় জনপ্রিয় টিভি অভিনেত্রী শবনম ফারিয়া নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। বিষয়টি জানিয়ে থানায় জিডিও করেছেন এ অভিনেত্রী। বুধবার সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপে ফারিয়া থানায় জিডির বিষয়টি জানান।

সম্প্রতি চ্যানেল আই’য়ে প্রচারিত ‘কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার বিচারক হওয়ার সমালোচনার দরুন এ নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন তিনি। বিষয়টি নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা কথা শুনতে হচ্ছে তাকে। ফলে গতকাল (৩ আগস্ট) পল্টন থানায় জিডি করেন তিনি। জিডিতে মেহেদী হাসান ফরহাদ নামে একজনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

ফারিয়ার করা জিডির নম্বর ১৮৮। পল্টন থানার ডিউটি অফিসার এস এই মিনিহাজও এই জিডির ব্যাপারে নিশ্চিত করেছেন।

শবনম ফারিয়া সাধারণ জিডিতে অভিযোগ করেছেন, গত ৭ দিন ধরে তার ফেসবুকে আজেবাজে কমেন্টস আসছে। এর চারদিন পর, মেহেদী হাসান ফরহাদ (ফ্রেন্ডস ফর লাইফ) নামে একটি ফেসবুক আইডি থেকে ‘মেনস ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী চ্যানেল আই হিরো-কে হবে মাসুদ রানা’ অনুষ্ঠানের কিছু ছবি পোস্ট করা হয়। সঙ্গে যুক্ত করা হয় তার ব্যক্তিগত ফোন নম্বরটিও। এরপর থেকে অনবরত বিভিন্ন অপরিচিত নম্বর থেকে ফোন আসতে থাকে তার।

এছাড়াও তার ফেসবুক আইডি থেকে তার নামে মিথ্যাচার করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন