রাজধানীতে ইন্টারভিউ বোর্ডে অজ্ঞান করে তরুণীকে গণধর্ষণ!

রাজধানীর শ্যামলীতে চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন এক তরুণী।

বুধবার (২৮ আগস্ট) রাতে এ ঘটনায় শের-ই বাংলা নগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী তরুণী। পরে অফিসটিতে অভিযান চালায় পুলিশ।

এ ঘটনায় গতকাল বুধবার রাতে শ্যামলীর ৩ নম্বর সড়কের কথিত ওই অফিস থেকে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। তবে অভিযুক্ত আরও দুইজন পলাতক রয়েছে।

জানা যায়, মঙ্গলবার (২৭ আগস্ট) বিকেলে চাকরির সাক্ষাৎকার দিতে গেলে ওই তরুণীকে কোকের সঙ্গে ঘুমের বা নেশাজাতীয় ওষুধ মিশিয়ে খাইয়ে অজ্ঞান করা হয়। এরপর ৩-৪ জন মিলে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে।

শেরেবাংলা নগর থানার এসআই তৌহিদুল বলেন, মেয়েটি থানায় এসে দাবি করে সাক্ষাৎকারের সময় তাকে কোকের সঙ্গে ঘুমের বা নেশাজাতীয় কোনো ওষুধ খাইয়ে ৩-৪ জন ধর্ষণ করেছে। মেয়েটি প্রতিষ্ঠানের নাম বলতে পারেনি কিন্তু সে বাড়িটি চেনে।

শেরেবাংলা নগর থানার ডিউটি অফিসার রেজাউল জানান, ওই তরুণী শান্তা মারিয়াম নামে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পড়ছে বলে জানিয়েছে। তার সঙ্গে তার বন্ধুরাও থানায় এসেছে। তারা সবাই এখন পুলিশের সঙ্গে ওই ভবনে গেছে।

সর্বশেষ রাত দেড়টায় ঘটনাস্থল থেকে এসআই তৌহিদুল বলেন, আমরা মেয়েকে নিয়ে ওই ভবনের অফিসটিতে এসেছি। এখানে একজনকে পেয়েছি। তার সঙ্গে কথা বলছি আমরা। ভবনে কোনো অফিসের সাইনবোর্ড নেই। তাই প্রতিষ্ঠানটির নাম আপাতত বলা যাচ্ছে না।

আরও পড়ুন