রেনু হত্যায় ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় সন্তানকে ভর্তি করাতে স্কুলের খোঁজ নিতে গিয়ে ‘ছেলেধরা’ সন্দেহে গণপিটুনিতে নিহত তাসলিমা বেগম রেনুর পরিবারকে পাঁচ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে একটি রিট দায়ের করা হয়েছে।

 

রবিবার (২৮ জুলাই) আইনজীবী ইশরাত হাসান হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জনস্বার্থে এই রিট দায়ের করেন। এতে অন্তর্বর্তীকালীন ক্ষতিপূরণ হিসেবে রেনুর পরিবারকে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে ১০ লাখ টাকা দেওয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

রিটে বলা হয়, গণপিটুনিতে জড়িতদের বিরুদ্ধে পৃথক আইন তৈরির নির্দেশনার পাশাপাশি রেনুকে বাঁচাতে বিবাদীদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না- তা জানতে রুল জারির আরজি জানানো হয়েছে।

একইসঙ্গে রিটে গুজবের বিষয়ে সব ধরনের পোস্ট ফেসবুক থেকে মুছে ফেলারও নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

রিটে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, আইন মন্ত্রণালয় ও তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব, পুলিশের আইজি, ডিএমপি কমিশনার ও বাড্ডা থানার অফিসার ইনচার্জকে (ওসি) বিবাদী করা হয়েছে।

ইশরাত হাসান বলেন, ‘আবেদনটির ওপর আজ (রবিবার) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের নেতৃত্বাধীন হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানি হতে পারে।’

উল্লেখ্য, গত ২০ জুলাই বাড্ডা প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সন্তানের ভর্তির বিষয়ে খোঁজ নিতে গিয়ে তাসলিমা বেগম রেনুকে কথিত ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি দেওয়া হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন। পরে এ ঘটনায় অজ্ঞাত ৪০০-৫০০ জনকে আসামী করে হত্যা মামলা করেন নিহতের ভাগনে সৈয়দ নাসির উদ্দিন টিটু।

রাজধানী ঢাকার মহাখালীতে ৪ বছরের মেয়ে ও নিজ মাকে নিয়ে থাকতেন রেনু। ২ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদ হলে তাঁদের ১১ বছরের ছেলে বাবার সঙ্গে থাকত।

আরও পড়ুন