শাহরুখ-সালমানকেও টপকে গেলেন প্রভাস

দক্ষিণী সুপারস্টার তিনি। তেলেগু ছবিতে একচেটিয়া অভিনয় করেন তিনি। ২০০২ সালে এশওয়ার সিনেমা দিয়ে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। বলছি, ‘বাহুবলী’ খ্যাত দক্ষিণের অন্যতম জনপ্রিয় তারকা প্রভাস রাজু উপ্পলাতির কথা।

২০১৪ সালে তিনি প্রভু দেবা পরিচালিত বলিউডের একটি ছবি অ্যাকশন জ্যাকসন এ একটি আইটেম গানে অভিনয়ের মাধ্যমে হিন্দি ছবিতে হাজির হন। শক্তিমান অভিনেতা প্রভাস অভিনীত বাহুবলী: দ্য বিগিনিং ছবিটি ছিল গ্লোবাল ভারতীয় চলচ্চিত্রের সর্বকালের সর্বোচ্চ ও ভারতের সর্বোচ্চ ব্যবসা সফল সিনেমা।

এবারও সুজিত পরিচালিত ‘সাহো’ সিনেমাটিতে অভিনয় করেছেন প্রভাস। আর এই সিনেমাটির মুক্তির দিন যতই ঘনিয়ে আসছে সাথে উত্তেজনার পারদও বাড়ছে। ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে- এই সিনেমাটিতে অভিনয়ের জন্য প্রভাস পারিশ্রমিক নিয়েছেন ১০০ কোটি রুপি। অবশ্য সিনেমা-সংশ্লিষ্টরা এ ব্যাপারে মুখ না খোলায় রহস্য আরও ঘনীভূত হচ্ছে। আর এ গুঞ্জনে প্রভাস বা তার পরিবারের কেউই মুখ খোলেন নি। খবর ইন্ডিয়া টুডে।

যদি এ খবর সত্যি হলে পারিশ্রমিকের দিক দিয়ে প্রভাস সুপারস্টার রজনীকান্ত, শাহরুখ খান ও সালমান খানের মতো তারকাদেরও ছাড়িয়ে গেছেন। গণমাধ্যমের বিভিন্ন প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল, ‘সাহো’র জন্য প্রভাস নির্দিষ্ট অঙ্কের পারিশ্রমিক পেয়েছেন। একাধিক ভাষায় নির্মিত সিনেমাটির লভ্যাংশের বড় একটি অংশ প্রভাস পাবেন, এমন সংবাদও এসেছিল আগের প্রতিবেদনগুলোতে।

এরই মধ্যে ‘সাহো’র শুটিং শেষ হয়েছে। শুটিং-পরবর্তী কাজ চলছে পুরোদমে। এর আগে ছবিটি ১৫ আগস্ট ভারতের স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে মুক্তি দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কারিগরি কাজে বিলম্বের জন্য এটি পিছিয়ে ৩০ আগস্ট নির্ধারণ করা হয়েছে। তেলেগু, হিন্দি ও মালয়ালাম ভাষায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে ছবিটি।

চলতি বছর বড় বাজেটের ছবিগুলোর একটি ‘সাহো’। থ্রিলার-নির্ভর এ সিনেমায় প্রভাস ছাড়াও শ্রদ্ধা কাপুর, নীতিন মুকেশ, অরুণ বিজয়, জ্যাকি শ্রফ, মহেশ মাঞ্জরেকার ও মন্দিরা বেদি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করেছেন।

আরও পড়ুন