শিক্ষার্থীদের কান্না দেখে পদত্যাগ করলেন সহকারী প্রক্টর

শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করলেও পদত্যাগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর।

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আন্দোলন করছিলেন শিক্ষার্থীরা। সেখানে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে পদত্যাগ করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারি প্রক্টর হুমায়ুন কবির।

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেন। পদত্যাগের বিষয়টি নিশ্চিত করে সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবির বলেন, `আমার সন্তানতুল্য শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা হয়েছে। কিন্তু আমি কিছুই করতে পারিনি। আমি আমার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছি, তাই নৈতিক জায়গা থেকে পদত্যাগ করেছি।’

হামলায় আহত শিক্ষার্থীদের দেখতে গেলে সহকারী প্রক্টর হুমায়ুন কবিরকে ঘিরে ধরেন শিক্ষার্থীরা। একই সঙ্গে প্রক্টর হুমায়ুন কবিরের পা ধরে কান্না করে বাঁচার আকুতি জানান শিক্ষার্থীরা। এরপর এই ঘোষণা দেন তিনি।

হুমায়ুন কবিরের পদত্যাগের বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার নুরউদ্দিন আহমেদ বলেন, পদত্যাগপত্র এখনো জমা দেননি তিনি । তাহলে তিনি কীভাবে পদত্যাগ করলেন। তবে হুমায়ুন কবির পদত্যাগ করতে চাইলে করতে পারেন। এটি তার ব্যক্তিগত বিষয়।

উল্লেখ্য, শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে শিক্ষার্থীরা উপাচার্যের পদত্যাগ আন্দোলনে অংশগ্রহণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে যাচ্ছিলেন। তখন ৪০-৫০ জনের বহিরাগত একটি দল তাদের ওপর রামদা, হকিস্টিক এবং লাঠি নিয়ে হামলা চালায়। হামলায় অন্তত ২০ জন আহত হন। আহত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ফিশারিজ দ্বিতীয় বর্ষের এক শিক্ষার্থীর মাথা ইট দিয়ে ফাটিয়ে দেয়া হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। অহত শিক্ষার্থীদের গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও পড়ুন