শেষবারের মতো মাকে দেখতে যাচ্ছিলেন, পথে হারালেন স্বামী-সন্তান

মাদারীপুরের শিবচর উপজেলায় বাংলাবাজার ফেরিঘাটে বালুবাহী বাল্কহেডের সঙ্গে স্পিডবোট দুর্ঘটনায় ২৬ জনের প্রাণহানি হয়েছে। বিকাল সাড়ে ৫টা পর্যন্ত এদের ১৭ জনের মরদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে স্বজনদের কাছে। এ ছাড়া দুর্ঘটনায় আহত পাঁচজনকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে। ভর্তি পাঁচজনের মধ্যে একজন ওই স্পিডবোটের চালক শাহ আলম। তাকে আটক করেছে পুলিশ।

এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় বাবা মা বোনসহ পরিবারের সবাইকে হারিয়েছে সাত বছরের ছোট্ট মীম। এছাড়া মায়ের মৃত্যুর খবর পেয়ে তার মরদেহ শেষবার দেখতে ঢাকা থেকে বাড়ি যাওয়ার পথে স্বামী আর সন্তান হারিয়েছেন ফরিদপুরের আদুরি বেগম।

অসহায় ও বিধ্বস্ত আদুরী তার মা মনোয়ার বেগমের মৃত্যুর খবর পেয়ে সোমবার সকালে ঢাকা থেকে বাড়ি যেতে রওনা দিয়েছিলেন স্বামী আরজু সরদার (৫০) এবং দুই বছরের ছেলে সন্তান মো. ইয়ামিনকে নিয়ে।

 

স্পিডবোটে পদ্মা নদী দ্রুত পার হতে গিয়ে দুর্ঘটনার শিকার হয়ে নিজে প্রাণে বাঁচলেও স্বামী ও সন্তানকে হারিয়ে হতবাক হয়ে গেছেন আদুরী। সোমবার বেলা ১১টার দিকে আদুরীকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বিকেলে স্বামী ও সন্তানের লাশ নিয়ে বাড়ির পথে রওনা হন আদুরী।

আরও পড়ুন