শ্রীমঙ্গল মাজদিহি পাহাড়ে জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গল উপজেলার ৫ নং কালাপুর ইউনিয়নের মাজদিহি, নারায়ন ছড়া অকৃর্ষি খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন করেছে এলাকার বাসিন্দারা। রবিবার (১৫ সেপ্টম্বর) মৌলভীবাজার প্রেসক্লাবের সামনে ১০:৩০ মিনিটের সময় মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় তারা মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার বরাবরে স্মারক লিপি প্রদান করে। লিখিত স্মারক লিপি থেকে জানা যায় ৬০-৭০ বছর ধরে মাজদিহি ও নারায়ন ছড়া টি ষ্টেট মৌজায় জাতীর জনক বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের আহব্বানে অপ্রয়োজনীয় জঙ্গল পরিষ্কার করে ‘‘অধিক ফসল ফলাও’’ কর্মসূচীতে অনুপ্রাণিত হয়ে খাস জমিতে বসত ঘর নির্মাণ করে ফসল চাষ করে আসছেন।

উক্ত খাস জমিতে ফল, শাকসকজি উৎপাদন করে এখানকার বসবাসকারী প্রায় ২০ হাজার লোক জীবিকা নির্বাহ করছেন। দীর্ঘ সময়ে এখানে গড়ে উঠেছে মসজিদ,মাদ্রাসা,সরকারি প্রাইমারি স্কুল, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সহ পারিবারিক কবরস্থান। এখানে বসবাসকারী মানুষের সন্তানরা মসজিদ মাদ্রাসা ও স্কুলে লেখাপড়া করেন। বসবাসকারীরা সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী বন্দোবস্ত পাওয়ার জন্য জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করেও কোন সারা পাননি। গত ২০০৪ সালে মাজদিহিবাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে ভূমি মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী এম, রুহুল কদ্দুছ তালকদার (দুলু) এমপি জেলা প্রশাসক কে প্রতিবেদন পেশ করার আদেশ দিলেও বিষয়টি আর বেশি দূর এগোয়নি।

২০১৫ সালে প্রয়াত সমাজকণ্যাণ মন্ত্রী সৈয়দ মহসিন আলী এমপি. মাজদিহি এলাকাবাসী আবেদনের সুপারিশ করলেও কোন ফল হয়নি। মানববন্ধন চলাকালে মাজদিহি-তে বসবাসকারী বৃদ্ধ, যুবক, মহিলা মোঃ ইমান আলী, মোঃ শাহজাহান, মোঃ ইলিয়াছ মিয়া, আত্তর আলী, জায়েদা খাতুন, নীল কণ্ঠ, আমীরুন বেগম, মোঃ আব্দুল গণি সহ অনেকই কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমাদের পূর্ব পুরুষ থেকে মাজদিহি-তে বসবাস করে আসছেন। ফসলাদি উৎপাদন করে জীবিকা নির্বাহ করে আসছি। এখন বন্দোবস্ত না পেলে আমরা কোথায় যাব ? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নিকট আমাদের আকুল আবেদন আমাদের খাস জমি বন্দোবস্ত পাওয়ার আইনানুগ ব্যবস্থা করুন।

আরও পড়ুন