সপ্তম পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালাতে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া, দাবি সিউলের

আবারও পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালাতে যাচ্ছে উত্তর কোরিয়া। এমন দাবি করেছে প্রতিবেশি দক্ষিণ কোরিয়া। এই দাবি সত্য হলে এটি উত্তর কোরিয়ার সপ্তম পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা হবে।

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের বরাত দিয়ে এই তথ্য দিয়েছে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম ‘কোরিয়া হেরাল্ড’।

এছাড়া প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তার বরাত দিয়েও এই তথ্য প্রকাশ করেছে দেশটির বার্তা সংস্থা ‘ইয়োনহাপ’।

 

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পরিকল্পিত পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালানোর আগে উত্তর কোরিয়া সতর্ক-সংকেত হিসেবে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইউন সুক-ইয়েওল দায়িত্ব গ্রহণের পর সম্প্রতি প্রথমবারের মতো ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। গত বৃহস্পতিবার নিজের পূর্ব উপকূল লক্ষ্য করে তিনটি স্বল্প-পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ে পিয়ংইয়ং।

দক্ষিণ কোরিয়ার ওই কর্মকর্তা উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষার তারিখ জানাতে ব্যর্থ হয়েছেন এবং কোন সূত্রে এ খবর পেয়েছেন তাও জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। আগামী ২০ মে থেকে ২৪ মে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দক্ষিণ কোরিয়া সফরের কথা রয়েছে।

এমন সময় এ খবর প্রকাশিত হল যখন দক্ষিণ কোরিয়ার নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট উত্তর কোরিয়াকে পুরোপুরিভাবে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, পিয়ংইয়ংয়ের পরমাণু অস্ত্র কর্মসূচি গোটা বিশ্বের জন্য হুমকি সৃষ্টি করছে।

আমেরিকাসহ পশ্চিমা বিশ্বের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে ২০০৬ সালের ৮ অক্টোবর প্রথম পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালায় উত্তর কোরিয়া। এরপর আরও পাঁচটি গণবিধ্বংসী অস্ত্রের পরীক্ষা চালায় দেশটি এবং এর সর্বশেষ পরীক্ষাটি চালানো হয় ২০১৭ সালের ৩ সেপ্টেম্বর। উত্তর কোরিয়ার কাছে ১৩,০০০ কিলোমিটার পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে, যা দিয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মূল ভূখণ্ডে আঘাত হানা সম্ভব।

এর আগে চলতি মে মাসের গোড়ার দিকে আমেরিকাও উত্তর কোরিয়ার সম্ভাব্য পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষার ব্যাপারে সতর্ক করে দিয়েছিল।মার্কিন পররাষ্ট্র দফতরের উপ মুখপাত্র জ্যালিনা পোর্টার গত সপ্তাহে বলেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র একথা বুঝতে পেরেছেন যে, উত্তর কোরিয়া পুঙ্গি-রি স্থাপনাটি প্রস্তুত করছে এবং সেখানে শিগগিরই পরমাণু অস্ত্রের পরীক্ষা চালানো হবে।

কঠোর আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা মাথায় নিয়ে উত্তর কোরিয়া গত এক বছরে ১৬টি ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালিয়েছে। তবে চীন ও রাশিয়া জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের মাধ্যমে পিয়ংইয়ংয়ের ওপর নতুন করে আর কোনও নিষেধাজ্ঞা আরোপের বিরোধিতা করেছে। উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং-উন সম্প্রতি তার দেশের পরমাণু অস্ত্র সক্ষমতাকে শক্তিশালী করা হবে বলে ঘোষণা দেন। সূত্র: কোরিয়া হেরাল্ড

আরও পড়ুন