সিরাজগঞ্জে করোনা আক্রান্ত হয়ে একজন ও উপসর্গ নিয়ে আরো একজনের মৃত্যু

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলায় করোনা আক্রান্ত হয়ে পোস্ট অফিসের স্টাফ ভেন্ডার হামিদুর রহমান ও করোনা উপসর্গ নিয়ে সয়দাবাদ হাই স্কুলের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন নামে এক বৃদ্ধ মারা গেছেন।

সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকাল অফিসার ডাঃ সৌমিত্র বসাক সোমবার (২৯ জুন) দুপুরে এই সকল তথ্য নিশ্চিত করে জানান, গত ২৩ মে তারিখে হামিদুর রহমানের নমুনা টেস্টের রিপোর্ট পজেটিভ আসে।

তিনি প্রথমে এনায়েতপুর খাজা ইউনুস আলী (রহঃ) মেডিকাল কলেজে এবং সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নেনে। পরে তার পরিবারের লোকজন তাকে গ্রামের বাড়ি পৌর এলাকার কাঠেরপুল সংলগ্ন নলিছা বাড়ীতে নিয়ে যায়।

সোমবার ভোর রাতে হামিদুর রহমান (৪৮) মারা যায়। অন্যদিকে সিরাজগঞ্জ পৌরসভার মিরপুর গ্রামের বিড়ালাকুঠির বাসিন্দা সয়দাবাদ হাইস্কুলের অবসরপ্রাপ্ত সহকারী প্রধান শিক্ষক আবুল হোসেন (৭০) সকালে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

এসময় পরিবারের অন্য ৪ জনেরও নমুনা সংগ্র্রহ করা হয়েছে। প্রশাসনের সহযোগীতায় স্বাস্থ্যবিধি অনুযায়ী তাদের দাফনকাফনের ব্যবস্থা করা হয়।

অন্যদিকে সিরাজগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিসের জেলা পরিসংখ্যানবিদ অফিসার মোঃ হুমায়ন কবীর জানান, গত ২৪ ঘন্টায় সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকাল কলেজের পিসিআর ল্যাবে ১৮৮ জনের রিপোর্টের মধ্যে ৬২ জনের রিপোর্ট পজেটিভ। এদের মধ্যে পুরানো ১৪ জন ও নতুন ৪৮ জন।

নতুন আক্রান্ত ৪৮ জনের মধ্যে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সর্বোচ্চ ২৫ জন। অন্যরা হচ্ছেন শাহজাদপুরের ৯ জন, বেলকুচির ৬ জন, রায়গঞ্জের ৫ জন, চৌহালীর ২ জন ও কাজিপুরের ১ জন।

সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজের পিসিআর ল্যাভে সর্বমোট ৪ হাজার ৯০২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্য করোনা পজেটিভ রিপোর্ট ৪৩৫ জন। মৃত্যু হয়েছে ৪ জন। সুস্থ্য হয়েছেন ২০ জন।

 

আরও পড়ুন