স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন করে যে ভাবে ধরা পড়ল প্রতারক

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালকে চাকরির তদবিরের জন্য দুর্নীতি দমন কমিশনের কমিশনার সেজে ফোন করে ধরা পড়েছে এক প্রতারক। এই প্রতারকের নাম মাহমুদুল হাসান সুমন। তাকে পুলিশের গোয়েন্দা শাখা (ডিবি) গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারের পর বুধবার দুপুরে ডিবির কর্মকর্তারা ওই প্রতারককে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দফতরে নিয়ে আসেন।

দুপুরের দিকে ওই প্রতারককে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দফতরে আনা হয় জানিয়ে জনসংযোগ কর্মকর্তা বলেন, ‘মো. মাহমুদুল হাসান সুমন নামে তার কাছ থেকে একটি পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়। তার বাড়ি লক্ষ্মীপুর সদরে বলে জানিয়েছে।’

এছাড়া তার কাছ থেকে একটি পরিচয়পত্র উদ্ধার করা হয়েছে। সেখানে তাকে যুক্তরাষ্ট্রের ‘রিগ্যান ইনভেস্টিগেশনস’ নামে একটি সংস্থার বাংলাদেশের প্রধান ইনভেস্টিগেটর হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। একই সঙ্গে তিনি প্রাইভেট ইনভেস্টিগেটর বলে পরিচয়পত্রে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিষয়টি দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক খানকেও জানানো হয়। মোজাম্মেল হক খানকে দেখানোর জন্য বিকেল ৪টার দিকে ওই ব্যক্তিকে সচিবালয় থেকে দুদকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা শরীফ মাহমুদ অপু বলেন, গতকাল একজন দুদক কমিশনার মোজাম্মেল হক খান পরিচয় দিয়ে মন্ত্রী মহোদয়কে (স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী) ফোন করেন। তিনি (কমিশনার পরিচয় দেয়া ব্যক্তি) স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেনকে ফোন করে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একজনকে শিক্ষক হিসেবে নিয়োগের বিষয়ে তদবির করার অনুরোধ জানান।

You might also like