হেফাজতের অভিযোগ গণগ্রেফতারের, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বললেন, ‘না’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের সঙ্গে বৈঠক করেছেন হেফাজতে ইসলামের শীর্ষ নেতারা। সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে হেফাজতের অন্তত ১০ জন শীর্ষ নেতা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ধানমন্ডির বাসায় ঢোকেন। রাত ১১টা ১৫ মিনিটের দিকে তারা বেরিয়ে আসেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসা থেকে বের হয়ে আসার পর গেটের সামনে দাঁড়িয়ে নিজেরা কিছুক্ষণ কথা বলেন হেফাজত নেতারা। এ সময় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক বিষয়ে জানতে চাইলে হেফাজতের মহাসচিব নূরুল ইসলাম জিহাদি বলেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক বিষয়ে ‍বিস্তারিত পরে জানাবো।

তবে হেফাজত নেতাদের সঙ্গে বৈঠক বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, হঠাৎ করেই তারা (হেফাজতে ইলাম) আমার সঙ্গে দেখা করেছেন। তাদেরকে গণগ্রেফতার করা হচ্ছে বলে জানান। তখন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন গণগ্রেফতার করা হচ্ছেনা। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে তাদেরকেই গ্রেফতার করা হচ্ছে।

বৈঠকে হেফাজত নেতারা কওমী মাদ্রাসা খুলে দেয়ার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন।

এর আগে সোমবার (১৯ এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে হেফাজতের অন্তত দশ জন শীর্ষ নেতা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ধানমন্ডির বাসায় গেছেন বলে জানা গেছে। এতে মামুনুল হকের ভাই বেফাক মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হকও রয়েছেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন দলটির নায়েবে আমীর মাওলানা আতাউল্লাহ হাফেজী, হেফাজত মহাসচিব নূরুল ইসলাম জিহাদী, মামুনুল হকের ভাই মাওলানা মাহফুজুল হক, অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান (দেওনার পীর), মাওলানা হাবিবুল্লাহ সিরাজী প্রমুখ। এসময় ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তারাও উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গেছে।

 

আরও পড়ুন