২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলা নিয়ে যা বললেন মায়া

২০০৪ সালের তৎকালীন বিরোধীদল আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্বকে চিরতরে মুছে ফেলার জন্য ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা চালানো হয় বলে অভিযোগ রাজনীতির ময়দানে। এমন কথা আরও জোরালো ভাবে বললেন গ্রেনেড হামলায় গুরতর আহত হওয়া তৎকালীন মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম। তিনি বলেন, এই নারকীয় হত্যাকান্ডের মধ্য দিয়েই, দেশে বিবাদের রাজনীতি শুরু করে বিএনপি।

বুধবার (২১ আগস্ট) সকালে রাজধানীর ২৩ বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নির্মিত অস্থায়ী বেদিতে গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে পুষ্পার্ঘ অর্পণ করেন নেতাকর্মীরা।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার বিষয়ে জানতে চাইলে তৎকালীন ঢাকা মহনগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ২১ আগস্টের দুঃসহস্মৃতির কথা মনে পড়লে আজও ঘুমাতে পারি না, এই ভয়াবহতার কথা, এক কথায় বলে প্রকাশ করা যাবে না। নেত্রীসহ আওয়ামী লীগের শীর্ষ নেতৃত্বকে চিরতরে মুছে ফেলার জন্যই তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের পৃষ্টপোষকোতায় গ্রেনেড হামলা চালানো হয়েছিল। আমি একটি কথা স্পষ্ট করে বলতে চাই, ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় সরাসরি দুর্নীতির বরপুত্র খালেদা জিয়ার গুণধর ছেলে তারেক রহমান জড়িত ছিল। তাকে ফিরিয়ে এনে ২১ আগস্ট গ্রেনড হামলা মামলার বিচারের মুখোমুখি করতে হবে। নয়ত শহীদদের আত্মা শান্তি পাবে না।

আরও পড়ুন