৪৮ বছর পর আজ পাকিস্তান মুছে হলো বাংলাদেশ

স্বাধিনতার ৪৮ বছর পর বাংলাদেশ-ভারত সীমান্তের সীমান্ত-পিলার থেকে PAKISTAN/PAK লেখা মুছে লেখা হলো BANGLADESH/BD। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এই গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব সম্পাদনের মাধ্যমে অটুট রাখলো স্বাধীন বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব।

১৯৪৭ সালে ভারত-পাকিস্তান বিভাগের পর ৮ হাজারের অধিক সীমানা পিলারে ইংরেজীতে খোদাই করে লেখা ছিলো IND-PAK/INDIA-PAKISTAN। বাংলাদেশের সীমান্তগুলোতেও দেখা মিলে এরূপ পিলারের। পিলারগুলোর অবস্থান বাংলাদেশের চট্টগ্রাম, সিলেট, কুমিল্লা, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, সাতক্ষীরা, যশোর, চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, নেত্রকোণা, ময়মনসিংহ, জামালপুর এবং সুনামগঞ্জের সীমান্তগুলোতে। সীমান্তের এমন অনেকগুলো পিলারে খোদাই করে লেখা ছিলো PAKISTAN/PAK শব্দটি।

১৯৭১ এ রক্তক্ষয়ী মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে লাখো প্রাণের বিনিময়ে স্বাধীনতা অর্জিত হওয়ার ৪৮ বছর পরেও সীমান্ত পিলারে কেনো পাকিস্তানের নাম, এমন প্রশ্নে বিড়ম্বনার মুখে পড়তে হয় স্থানীয় সবাইকে। বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নজরে আসার সাথে সাথে তিনি বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোঃ সাফিনুল ইসলাম, বিজিবিএম, এনডিসি, পিএসসি কে এই সমস্যা সমাধানের নির্দেশ দেন। বিজিবি মহাপরিচালক অধিনস্থ সকল রিজিয়নকে বিজিবি’র নিজস্ব তহবিল ব্যবহার করে সীমান্ত পিলারগুলোতে PAKISTAN/PAK লেখার পরিবর্তে BANGLADESH/BD লেখার নির্দেশ দেন। তার আদেশ দ্রুতগতিতে বাস্তবায়নে নেমে পড়েন বিজিবি সদস্যরা।

বিজিবি সদস্যদের দায়িত্বপরায়নতার ফলে ইতোমধ্যেই পিলারগুলো থেকে পাকিস্তানের নাম মুছে বাংলাদেশের নাম প্রতিস্থাপনের কাজ প্রায় সম্পন্ন হওয়ার পথে। বিজিবির এই অবদানে সীমান্তবর্তী মানুষেরা তাদের হারানো গৌরব ফিরে পেয়েছে। সীমান্তবর্তী মানুষ এবং দেশের আপামর জনগণ প্রধানমন্ত্রী এবং বিজিবির এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়ে তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে। সাধারণ মানুষ মনে করে সীমান্ত পিলারে এই নাম পরিবর্তনের মাধ্যমে বিজিবি দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপণ করেছে। বিজিবির সকল সদস্য এই মহান দায়িত্ব অর্পণের জন্য প্রধানমন্ত্রীর প্রতি অশেষ কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেছেন।

আরও পড়ুন