৭ মে গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতি স্থায়ীকরণের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ: বাহাউদ্দিন নাছিম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম বলেছেন, ৭ মে গণতন্ত্র ও অসাম্প্রদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ রাজনীতি স্থায়ীকরণের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ। আজ বিকেলে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের পক্ষে ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের উদ্যোগে রূপনগর মডেল স্কুল প্রাঙ্গনে ১০০০ পরিবারকে করোনাকালীন সময়ে বস্ত্র ও খাবার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, আজকের দিনটি  আমাদের সবার কাছে, বাঙালি জাতির কাছে তাৎপর্যপূর্ণ। শেখ হাসিনা চিকিৎসা শেষে দেশে ফিরতে চাইলে এ দিন তত্ত্বাবধায়ক সরকার নামধারী সামরিক সরকার তাকে দেশে ফিরতে বাধা প্রদান করে। সেদিন বঙ্গবন্ধুকন্যাকে গুলি করে হত্যার হুমকি, গ্রেফতারের হুমকি দেওয়া হয়েছিল। মঈন – ফখরুদ্দিন গংরা ভয়ঙ্কর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছিল। তাদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে সেদিন লাখো মানুষ বিমানবন্দরে শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলো, স্বাগত জানিয়েছিলো।

যারা শেখ হাসিনাকে আটকানোর ধৃষ্টতা দেখানোর চেষ্টা করেছিল তাদের পরাভূত করে মানুষের ভালোবাসায় শেখ হাসিনা বীরের বেশে আজকের এ দিনে দেশে ফিরে এসেছিলেন। ১৪ বছর আগের এদিনটি তাই অসাম্প্রদায়িক ধর্মনিরপেক্ষ গণতান্ত্রিক বাংলাদেশের জন্য তাৎপর্যপূর্ণ।

 

বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, সারাবিশ্ব করোনায় বিপর্যস্ত, আমরাও তার বাইরে নই। জীবনের চেয়ে বড় মূল্যবান কিছু নেই, একইসাথে জীবিকাও গুরুত্বপূর্ণ। যারা দিন আনে দিন খায় তাদের পাশে বর্তমান সরকার দাঁড়াচ্ছে। আওয়ামী লীগও দলীয়ভাবে মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছে। এটাই মানবিক কার্যক্রম, এটাই আমাদের রাজনীতি। আমাদের সবাইকে মানুষের পাশে দাঁড়াতে হবে।

তিনি বলেন, এই করোনাকালেও কেউ কেউ মিথ্যা ছড়িয়ে, গুজব রটিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করে অপরাজনীতিতে ব্যস্ত। করোনাকালে এরা নিজেদের কর্মীদেরই খোঁজ খবর রাখে না, পাশে দাঁড়ায় না, মানুষের খোঁজ খবর কি রাখবে। এরা মিথ্যার অপরাজনীতিতে নানা স্বপ্ন দেখে। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল শক্তিকে ঐক্যবদ্ধভাবে  সত্যের পক্ষে কাজ করতে হবে।

ঢাকা মহানগর উত্তর ৭ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি কাজী আবদুল হাই হারুন এর সভাপতিত্বে এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর তফাজ্জল হোসেন টেনুর  ব্যবস্থাপনায় বস্ত্র ও খাবার প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহসভাপতি গাজী মেজবাউল হোসেন সাচ্চু, স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোবাশ্বের চৌধুরী,  ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আজিজুল হক রানা, মিজানুর রহমান মিজান, দপ্তর সম্পাদক উইলিয়াম প্রলয় সমাদ্দার বাপ্পি প্রমুখ।

 

আরও পড়ুন