আবারও ১, ৫০,০০০ টাকা জরিমানা মীনাবাজারকে

advertisement

ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন অঞ্চল -৫ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসান এর নেতৃত্বে এবং ১ এপিবিএন উত্তরা পুলিশ এর সহায়তায় আজ ২৬ ফেব্রæয়ারাী (মঙ্গলবার), মোহাম্মদপুরের মোহাম্মদিয়া হাউজিং সোসাইটি এলাকায় তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বা¯Íবায়নে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়। তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ আইন আইনানুসারে তামাকজাত দ্রব্যের সকল ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচার প্রচারনা নিষিদ্ধ।এই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদপুরের মোহাম্মদিয়া হাউজিং সোসাইটি এলাকায় অবস্থিত মীনাবাজার চেইনশপকে ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো এর ব্যান্ডসন এ্যান্ড হেডজেস নামক তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) টাকা জরিমানা করা হয় ও বিজ্ঞাপনটি ধংস করা হয়। এই শাখাকে এর আগেও ১,০০,০০০/-(এক লক্ষ) এবং ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার) টাকা জরিমানা করা হয়েছিলো। উক্ত দুইটি ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় সহায়তায় ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের অঞ্চল-৫ এর স্বাস্থ্য পরিদর্শক আব্দুল খালেক মজুমদার।

ম্যাজিস্ট্রেট মীনাবাজার কর্তৃপক্ষকে সাবধান করে বলেন যদি তারা একই অপরাধ পুনরায় করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে মামালার ব্যবস্থা গ্রহণকরা হবে। ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনার সময় ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিন সিটি কর্পোরেশনকে উদ্বদ্ধুকরণের মাধ্যমে সিটি কর্পোরেশন আওতাধীন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় সহায়তা প্রদান করছে ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন।

উল্লেখ্য যে, ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্য ব্যবহার (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০০৫(সংশোধিত-২০১৩) অনুযায়ী, ধারা ৫- তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন ও প্রচারণা নিষিদ্ধ এবং পৃষ্ঠপোষকতা নিয়ন্ত্রণ সম্পর্কিত বিধান- (চ) তামাকজাত দ্রব্যের মোড়ক, প্যাকেট বা কৌটার অনুরূপ বা সাদৃশ্য অন্য কোন দ্রব্য বা পন্যের মোড়ক, প্যাকেট বা কৌটার উৎপাদন, বিμয় বা বিতরন করিবেন না বা করাইবেন না; (ছ) তামাকজাত দ্রব্যের বিμয়স্থলে (point of sale) যে কোন উপায়ে তামাকজাত দ্রব্যের বিজ্ঞাপন প্রচার করিবেন না বা করাইবেন না।

‘কোন ব্যাক্তি এই ধারার বিধান লঙ্ঘন করলে তিনি অনুর্ধ্ব তিন মাস বিনাশ্রম কারাদন্ড বা অনধিক এক লক্ষ টাকা অর্থদন্ড বা উভয় দন্ডে দন্ডণীয় হবে এবং উক্ত ব্যাক্তি দ্বিতীয়বার বা পুনঃপুনঃ একই ধরনের অপরাধ সংঘটন করলে উক্ত দন্ডে দ্বিগুণ হারে দন্ডণীয় হবেন।’

২০৪০ সালের মধ্যে তামাকমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে সবার তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন মেনে পদক্ষেপ গ্রহণ করার প্রত্যাশা ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশনের।

advertisement

You might also like

advertisement