ঘাম না ঝরিয়েও মেদ কমিয়ে আনা যাবে অনায়াসে

মেদ কমাবে

advertisement

দৈনন্দিন কাজের চাপ, অফিসে সারাদিন বসে বসে কাজ এবং বাইরের মশলাদার খাওয়া-দাওয়ায় বাড়ছে শরীরের স্তুলতা। চিকিত্সকদের মতে, স্তুলতা বা বাড়তি মেদ থেকে শরীরে একাধিক রোগ বাসা বাঁধতে শুরু করে। ব্যস্ততার চাপে শরীরচর্চারও সময় নেই। জিমে গিয়ে মেদ ঝরানোরও তাই উপায় নেই। তাহলে এ থেকে বাঁচার উপায় কী?

জিমে না গিয়ে, ঘাম না ঝরিয়েও মেদ কমিয়ে আনা যাবে অনায়াসে। সাধারণ উপাদান দিয়েই এমন এক পানীয় তৈরি করা যায়, যা খেলে মাত্র ১০ দিনেই কমে যাবে পেটের মেদ। পানীয়টি তৈরি করতে লাগে মাত্র দুটি উপাদান। আদা আর জিরা।

আদা যে শুধু রান্নারই স্বাদ বাড়ায় তা নয়, আদার একাধিক ঔষধি গুণ শরীরের জন্যেও খুব উপকারী। নিয়মিত আদা খাওয়ার অভ্যাস একাধিক রোগ-জ্বালার থেকে দূরে রাখবে আপনাকে। শরীরের নানা সমস্যার সমাধানে আদা একটি অত্যন্ত কার্যকরী ঔষধি উপাদান। ১০০ গ্রাম আদায় রয়েছে ৮০ ক্যালরি এনার্জি, ১৭ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ০.৭৫ গ্রাম ফ্যাট, ৪১৫ মিলিগ্রাম পটাসিয়াম আর ৩৪ মিলিগ্রাম ফসফরাস। হজমের সমস্যার সমাধানে বা দ্রুত মেদ ঝরাতে আদার জুড়ি মেলা ভার।

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে মোক্ষম দাওয়াই হতে পারে আদা। আদা ক্যালরি চটজলদি বার্ন করতে সক্ষম। তাছাড়া, আদার রস কার্বোহাইড্রেট দ্রুত হজম করায়, মেটাবলিজম রেট বাড়ায়, ইনসুলিনের নিঃসরণ বাড়ায়। ফলে ওজন সহজেই নিয়ন্ত্রণে থাকে। আসুন এ বার জেনে নেওয়া যাক কী ভাবে বানাবেন এই পানীয়।

এক চামক জিরা আর এক টুকরো আদা ৫০০ মিলিলিটার পানি দিয়ে ভাল করে ফুটিয়ে নিন। যত ক্ষণ না তা শুকিয়ে প্রায় অর্ধেক হয়ে যাচ্ছে, তত ক্ষণ পর্যন্ত ফোটান। চাইলে স্বাদের জন্য এর মধ্যে দারচিনি আর লেবুর রসও ব্যবহার করতে পারেন। টানা ১০ দিন সকালে এটি খান। উপকার পাবেন হাতেনাতে।

You might also like

advertisement