মৌলভীবাজারে বাহুবল উপজেলার নির্বাহী অফিসারের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃ

advertisement

হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার নির্বাহী অফিসার মোঃ জসিম উদ্দিন উপজেলা প্রকৌশলী মহিউদ্দিন কে সরকারি কর্মচারি আইন লঙ্গন করে ক্ষমতার অপব্যবহার করে হাত করা পড়ানোর ঘটনার প্রতিবাদে স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রকৌশলীরা দেশব্যাপি মানববন্ধন কর্মসূচি অংশ হিসাবে মৌলভীবাজার জেলায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। গত ১২ মার্চ মঙ্গলবার মৌলভীবাজার এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলীর দপ্তরের সামনে মৌলভীবাজার এলজিইডির সকল উপজেলার কর্মচারী কর্মকর্তাগণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন।

উক্ত মানবন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন মৌলভীবাজার এলজিইডি নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দর রশিদ খান, সহ সিনিয়র সহকারী প্রকৌশলী সকল উপজেলা প্রকৌশলী উপসহকারী প্রকৌশলী সহ স্বস্থরের কর্তকর্তা ও কর্মচারীগণ। এ সময় বক্তারা লিখিত বক্তবে বলেন, হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে ভূয়া বিল ভাউচার দিয়ে সরকারি টাকা উঠিয়ে নিচ্ছেন। গত ৬ মার্চ কিছু ভূয়া বিল প্রকৌশলী মঈন উদ্দিন কে দিয়ে স্বাক্ষর করিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। মঈন উদ্দিন বিলে স্বাক্ষর না করায় থানা পুলিশ ডেকে এনে তাহার রুমে তাকে হাতকরা পাড়ানো হয়।

এছাড়াও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জসিম উদ্দিন এই উপজেলায় যোগদান করার পর থেকে সরকারি পরিতেক্ত বাসা বিনা ভাড়ায় বসবাস করছেন। উপজেলা পরিষদের মেরামত ও সংরক্ষণ এর কাজ দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা ভূয়া বিল করেছেন। এই সমস্ত সরকারি টাকার ভূয়া বিলে স্বাক্ষর না কারায় মঈন উদ্দিন কে আইন বহির্ভূত ভাবে হাতকরা পড়ান।এ ধরনের অনিয়ম ছাড়াও তিনি কয়েকজন ইউনিয়ন পরিষোদ চেয়াম্যানের সাথে যোগসাজস করে এডিপি এবং ভূমি উন্নয়নের টাকা লোটপাট করেছেন।

সাতকাপন ইউনিয়নের ১% ভূমিকর তহবিলের কাজের বিলের স্বাক্ষর দেওয়া জন্য উপজেলা প্রকৌশলকে চাপ সৃষ্টি করেন। উপজেলা প্রকৌশলী বিল ভাউচারে অনিয়ম থাকায় এবং নিয়ম বহির্ভূত ভাবে মাটির কাজ করার বিল প্রদানে অস্বীকৃতি জানান। এ ঘটনার পরে উপজেলা নির্বাহী কর্তকর্তা বেলা ১১.৩০ টায় নিজে উপজেলা প্রকৌশলীর দপ্তরে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রট হিসেবে বিচার সভা বসিয়ে উপজেলা প্রকৌশলী মঈন উদ্দিন কে গ্রেফতার করেন।

সরকারি কর্মচারী আইন ২০১৮ এর ৪১(১) দ্বারা অনুযায়ী কোন ফৌজদারী মামলায় আদালতে অভিযুক্ত হওয়ার পূর্বে কোন সরকারি কর্মকর্তা কে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের অনুমতি ছাড়া গ্রেফতারের কোন বিধান নেই। এ ব্যপারে জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়ের সচিব কে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে স্থানীয় সরকার বিভাগের প্রকৌশলীরা ।

You might also like

advertisement