বহু মানুষের জীবন বাঁচিয়েছে তরুণ

advertisement

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে আল নূর মসজিদে হামলার পর লিনউড মসজিদে হামলা হয়। তবে এক তরুণের সাহসিকতায় সেখানে বেঁচে গেছে বহু মানুষের জীবন। নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে খবরে বলা হয়, লিনউড মসজিদের খাদেম ওই তরুণ হামলাকারীর বিরুদ্ধে রুখে না দাঁড়ালে নিহতের সংখ্যা আরো অনেক বেশি হতে পারত।

ওই মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যাওয়া সৈয়দ মাজহারউদ্দিন বলেন, ‘৬০ থেকে ৭০ জন ওই সময় মসজিদে ছিলেন। হঠাত্ গুলির শব্দে লোকজন আতঙ্কে ছুটোছুটি শুরু করে। আমি তখন লুকানোর জায়গা খুঁজছিলাম। সবাই ভয়ে চিত্কার করছিল। দেখলাম এক লোক মসজিদের দরজা দিয়ে ঢুকল। সামরিক কায়দার ক্যামোফ্লাজড গিয়ার পরিহিত ওই হামলাকারী তখন নির্বিচারে গুলি চালাচ্ছিলো। দরজার কাছেই ছিলেন বয়স্ক কয়েকজন। হামলাকারী তাদের দিকেও গুলি চালায়। ওই সময় মসজিদের তরুণ খাদেম সুযোগ বুঝে হামলাকারীর ওপর ঝাঁপিয়ে পড়েন এবং তার হাত থেকে বন্দুকটা কেড়ে নেন। তারপর তিনি হামলাকারীকে ধরার চেষ্টাও করেন। কিন্তু অস্ত্রের ট্রিগারটা তিনি খুঁজে পাচ্ছিলেন না। হামলাকারী তখন দৌড়ে মসজিদ থেকে বেরিয়ে যায়। বাইরে তার জন্য গাড়ি নিয়ে অন্যরা প্রস্তুত ছিল। পরে সে পালিয়ে যায়।

তিনি জানান, তার সামনেই একজনের বুকে ও আরেক জনের মাথায় গুলি লাগে। একজন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

You might also like

advertisement