বিয়ের পোষাক গায়েই শ্রদ্ধা নিহতদের

advertisement

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদের নিরীহ মুসল্লিদের ওপর খুনি ব্রেন্টন টারান্ট যখন গুলি চালাচ্ছিলো তখন হাজার মাইল দূরের শহর তাওরাঙ্গার গির্জায় বিয়ে হচ্ছিলো রিস ও কেলির। আসরেই খবর পান দেশের অন্য প্রান্তে সন্ত্রাসী হামলার খবর। মুহূর্তেই আনন্দঘন বিয়েতে নেমে আসে বিষাদের নিঠুর ছায়া।

সেখান থেকে বিয়ের ফুলের তোড়া থেকে তিনটি তোড়া নিয়ে নিউজিল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় শহর তাওরাঙ্গার একটি মসজিদে উপস্থিত হন নব দম্পতি। বিয়ের পোষাক গায়েই শ্রদ্ধা জানান ক্রাইস্টচার্চের নিহতদের প্রতি।

রিস ক্যাম্পবেল সংবাদমাধ্যমকে বলেন, যারা নিজেদের পরিবারের লোকজনকে হারিয়েছে তাদের কথা ভেবে আমরা খুব দুঃখ পেয়েছি। আমরা দুজনে সিদ্ধান্ত নিই বিয়ের ফুলগুলো মসজিদের সামনে রেখে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাব। এর মাধ্যমে যারা এখন কঠিন সময় পার করছেন তাদের প্রতি আমরা সমর্থন জানালাম এবং আমরা তাদের পাশে আছি।

রিস ক্যাম্পবেল বলেন, শুক্রবার বিয়ে চলার সে সময়ই তার এক বন্ধু তাকে জানান যে, ক্রাইস্টচার্চে মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটেছে।

অপরদিকে কেলি বলেন, এ খারাপ খবর শোনার পর থেকে অনেক খারাপ লেগেছে। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম বিয়ের ফুল দিয়ে নিহতদের জন্য কিছু একটা করবো। নিউজিল্যান্ডে এ ধরনের ঘটনা সত্যিই খুব দুঃখজনক

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে শুক্রবার জুমার নামাজের সময় দুই মসজিদে ভয়াবহ হামলায় ৪৯ জন নিহত হন। এ ঘটনায় পুরো কিউই দ্বীপেই শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

You might also like

advertisement