পশ্চিম এশিয়ার শান্তি প্রক্রিয়ার ওপর চরম আঘাত

advertisement

মুসলিম বিশ্ব ও আরব দেশগুলোকে অপমান করেছেন ট্রাম্প। সম্প্রতি এমন মন্তব্য করেছেন লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর প্রধান সৈয়দ হাসান নাসরুল্লাহ।

মঙ্গলবার এক বক্তৃতায় তিনি বলেন, গোলান মালভূমির ওপর ইসরায়েলের সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মুসলিম বিশ্ব ও আরব দেশগুলোকে অপমান করেছেন।

বক্তৃতায় নাসরুল্লাহ আরো বলেছেন, এমন পদক্ষেপের মাধ্যমে ট্রাম্প পশ্চিম এশিয়ার শান্তি প্রক্রিয়ার ওপর চরম আঘাত হেনেছেন।

এছাড়া তিনি বলেন, আরব দেশগুলো নিষ্ক্রিয় অবস্থায় থাকলে শিগগিরই অধিকৃত জর্দান নদীর পশ্চিম তীরের ওপরও ইসরায়েলি সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দেবে ওয়াশিংটন।

গত সোমবার সিরিয়ার কাছ থেকে দখলকৃত গোলান মালভূমিকে ইসরায়েলের সার্বভৌমত্ব হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে ঘোষণাপত্রে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

১৯৬৭ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের সময় ইসরায়েল এই জায়গাটি সিরিয়ার কাছ থেকে দখল করে নিয়েছিল।

সোমবার হোয়াইট হাউসে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প যখন ওই ঘোষণায় স্বাক্ষর করছিলেন সেখানে উপস্থিত ছিলেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বিনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

ট্রাম্পের এমন ঘোষণায় বিশ্বজুড়ে সমালোচনা ও নিন্দা জানানো হয়েছে। এর মধ্যে জাতিসংঘ মানবাধিকার কমিশন, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, তুরস্ক, ফ্রান্সসহ অনেক দেশ রয়েছে।

উল্লেখ, ১৯৬৭ সালে ইসরায়েল গোলান মালভূমি দখল করার পর সিরিয়ান আরব বাসিন্দারা অধিকাংশই পালিয়ে যায়। ১৯৭৩ সালের যুদ্ধে সিরিয়া এটি পুনর্দখল করার চেষ্টা করেও পারে নি।

এরপর ১৯৭৪ সালে ইসরায়েল-সিরিয়া এক যুদ্ধবিরতি হয়, আর ১৯৮১ সালে ইসরায়েল গোলানকে নিজের অংশ করে নেয় একতরফা ভাবে।

You might also like

advertisement