নিচে নেট ধরার জন্য আবেদন

advertisement

বনানীর এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ভেতরে আটকে পড়েছেন অনেকে। ক্রেনগুলো ১২ তলার ওপরে পৌঁছুতে পারছে না। তবে ওপর থেকে কয়েকজনকে বিমান বাহিনীর হেলিকপ্টার উদ্ধার করেছে।

বর্তমানে আগুন থেকে বাঁচার জন্য ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়ছেন অনেকে। প্রত্যক্ষদর্শী অনেকে সাংবাদিকদের কাছে অনুরোধ করে নিচে নেট বিছিয়ে দেওয়ার জন্য। তাদের দাবি, তাকে ভবন থেকে ঝাঁপিয়ে পড়া মানুষগুলো অন্তত বাঁচতে পারবে।

সবশেষে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, ফায়ার সার্ভিসের লোকেরা জানিয়েছেন, ভেতরে আগুন নিয়ন্ত্রণ করা কোনোভাবে সম্ভব হচ্ছে না। তিনি সরকারের কাছে অনুরোধ জানান, ‘ওপরে আটকে পড়া মানুষ যারা লাফিয়ে পড়েছে তাদের বাঁচানোর জন্য নিচে নেট বিছানোর ব্যবস্থা করুন।’

উদ্ধার কাজের একটা পর্যায়ে আগুন বেড়ে যায়। এখনও মাঝেমধ্যে ১০-১১ তলায় হঠাৎ হঠাৎ আগুন লাফিয়ে উঠতে দেখা যাচ্ছে। ফায়ার সার্ভিসের ল্যাডার ১২ তলার ওপরে পৌঁছুচ্ছিলো না। এরপর আরও উঁচু ল্যাডার নিয়ে এসে ফায়ার সার্ভিসের দক্ষ কর্মীরা এ ভবন থেকে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করা শুরু করে। এ সময় দুইজন নারীসহ কয়েকজনকে উঁচু মইয়ের মাধ্যমে নামিয়ে আনতে দেখা যায়।

ভবনটিতে বেশ কিছু এসি রয়েছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু এসি বিস্ফোরণের আওয়াজ শোনা গেছে।

সম্মিলিতভাবে চার বাহিনী আগুন নেভানোর কাজ করে যাচ্ছে। তাদেরকে নামিয়ে অ্যাম্বুলেন্সে করে কুর্মিটোলা হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। নিচে দাঁড়িয়ে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকর্মীদের সহায়তা করছেন স্বেচ্ছাসেবী নানা সংগঠন

You might also like

advertisement