এফআর টাওয়ার হেলে পড়েছে

advertisement

রাজধানীর বনানীতে আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত এফআর টাওয়ার কিছুটা হেলে পড়েছে এবং ভেতরের বিভিন্ন তলা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই ভবনটি আর ব্যবহারের উপযোগী নয় বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। গতকাল রবিবার সকালে এফআর টাওয়ার পরিদর্শন শেষে বুয়েট ও রাজউকের সমন্বয়ে গঠিত তদন্ত টিমের সদস্য, বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ার বিভাগের অধ্যাপক মেহেদী আহমেদ আনসারী সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। দুর্ঘটনায় ভবনের ভেতরের কলাম ও স্ল্যাব ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। অন্যদিকে আটতলায় বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করছেন স্বরাষ্ট্র এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির সদস্যরা।

অধ্যাপক মেহেদী আহমেদ আনসারী বলেন, ‘ভবনে জরুরি নির্গমন পথ ছিল খুবই অপ্রশস্ত। কেবল একটি ফ্লোরে ফায়ার ডোর ছিল। আরও বেশ কিছু জায়গায় ত্রুটি রয়েছে। এগুলো সংশোধন ছাড়া ভবনটি ব্যবহার করা যাবে না।’ কমিটিতে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের তিনজন অধ্যাপক, রাজউকের প্রধান প্রকৌশলী ও সচিব (উন্নয়ন) এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী রয়েছেন। কমিটিকে তিন দিনের মধ্যে প্রাথমিক প্রতিবেদন দেওয়ার কথা বলা হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ে কমিটি রিপোর্ট জমা দেবে।

মেহেদী আহমেদ আনসারী সাংবাদিকদের বলেন, ‘বাংলাদেশ ইমারত নির্মাণ বিধিমালা ও ফায়ার সেফটি কোড অনুযায়ী সংস্কার ছাড়া ভবনটি ব্যবহার করা যাবে না। এই ভবন সংস্কারে কমপক্ষে তিন মাস লাগবে।’ বুয়েটের আরেকজন অধ্যাপক রাকিব আহসান জানান, ‘পরিদর্শনের সময় তারা দেখেছেন জরুরি নির্গমন পথটি কোনো কোনো জায়গায় বন্ধ ছিল।’ প্রাথমিক পরিদর্শন শেষে ভবনটির কনক্রিট ও অন্যান্য নির্মাণসামগ্রী পরীক্ষা করে দেখা হবে বলে জানিয়েছেন রাজউকের প্রধান প্রকৌশলী আবদুল লতিফ হেলালী। ১৮তলা ভবনটি ২৩ তলা করায় তা কতটা ঝুঁঁকি তৈরি করেছে, তা খতিয়ে দেখতেই এই পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হবে।

অধ্যাপক আনসারী সাংবাদিকদের বলেন, ভবন এখন ঝুঁকিপূর্ণ। পরিপূর্ণ তদন্ত করতে ১৫০ দিন সময় লাগবে। ভবনটি ব্যবহার করা যাবে কিনা- এর আগে আমরা বলতে পারব না। তবে এখন করা যাবে না, সেটা বলা যায়। তদন্ত দলের সদস্য রাজউকের সাবেক কর্মকর্তা শামসুদ্দীন আহমেদ চৌধুরী বলেন, আমরা যেসব ফ্লোরে গিয়েছি সব জায়গায় ফায়ার এক্সটিংগুইশার ছিল কিন্তু তা ব্যবহার করা হয়নি। এ কারণে আমরা বলছি দামি দামি অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র রাখলেই হবে না, ব্যবহারের জন্য কর্মী দরকার, প্রশিক্ষণ দরকার।

এদিকে এফআর টাওয়ারের আটতলায় বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে বলে ধারণা করছেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির সদস্যরা। গতকাল দুপুরে দুর্ঘটনাস্থলের কাছে বনানী থানা পুলিশের অস্থায়ী কন্ট্রোল রুমে গণশুনানি শেষে সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানান ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রণালয়ের তদন্ত কমিটির প্রধান অতিরিক্ত সচিব ফায়জুর রহমান। এই কমিটি ২৪ জন প্রত্যক্ষদর্শী ও হাসপাতালে চিকিত্সাধীন আহতদের যাবতীয় সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে পর্যালোচনা করে ৩ এপ্রিল প্রতিবেদন দেবে।

You might also like

advertisement