সাবেক স্ত্রীকে খুনের পর স্বামীর আত্মহত্যা

advertisement

গাজীপুরের কালিয়াকৈর উপজেলার হরতুকিতলা গ্রামে মকতুল মিয়ার(৩৫) ছুরিকাঘাতে ফাহিমা আক্তার(৩০) নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। ফাহিমাকে খুনের পর এলাকাবাসীর ধাওয়া খেয়ে মকতুল মিয়াও আত্মহত্যা করেছেন বলে জানা গেছে। ফাহিমা ও মকতুল সাবেক স্বামী-স্ত্রী।

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ফাহিমার সাবেক স্বামী শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে ফাহিমাকে ধারালো ছুরি দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালানোর চেষ্টা করেন। ওই সময় ফাহিমার চিৎকারে এলাকার লোকজন এগিয়ে আসে। একপর্যায়ে তারা মকতুল মিয়াকে ধাওয়া দেয়। গ্রামবাসীর ধাওয়া খেয়ে ফাহিমাকে হত্যায় ব্যবহৃত ছুরি নিজের বুকে ঢুকিয়ে পাশের একটি পুকুরে লাফিয়ে পড়েন।

মকতুল মিয়া ও ফাহিমা আক্তারকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁদের দুজনকে মৃত ঘোষণা করেন। নিহত ফাহিমা আক্তার শেরপুর সদর থানার মাইকপাড়া গ্রামের ইনতাজ আলীর মেয়ে। আর মকতুল মিয়া একই এলাকার মালিনপার গোনাইমিয়া গ্রামের আশকর আলীর ছেলে।
কালিয়াকৈর থানা-পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

ফাহিমার বাবা ইনতাজ আলী মোবাইল ফোনে জানান, গত ৫ থেকে ৬ মাস আগে গ্রামের বাড়িতে গ্রাম্য সালিসের মাধ্যমে ফাহিমা আক্তার ও মকতুল মিয়ার সঙ্গে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। তাঁদের দুজনের মধ্যে কোনো সম্পর্ক ছিল না। আমার মেয়ে ওই এলাকায় একটি কক্ষে তাঁর এক বান্ধবীকে নিয়ে ভাড়া থাকত। তাঁরা স্থানীয় একটি পোশাক তৈরির কারখানায় চাকরি করত। কী কারণে আমার মেয়েকে খুন করল তা তো জানি না।

কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) আলমগীর হোসেন মজুমদার জানান, সাবেক স্বামীর ছুরিকাঘাতে এক নারী নিহত হয়েছেন। পরে তিনিও আত্মহত্যা করেছেন বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

You might also like

advertisement