আজিবর রহমানসহ তার সমর্থকরা ক্ষুব্ধ

advertisement

প্রতিবেশীর মেয়ের বিয়েতে দাওয়াত খেতে গিয়েছিলেন এক কৃষক। এ অপরাধে তাকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করা হয়েছে। এ ছাড়া অন্য অতিথিদের পিটিয়ে হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। মাগুরার তেঘোর গ্রামে বিয়ের অনুষ্ঠানে এ ঘটনা ঘটেছে।

এলাকাবাসী জানায়, সোমবার মাগুরার সদর উপজেলার তেঘোর পশ্চিমপাড়ায় ইবাদত মোল্যা তার মেয়ে নাসরিনের বিয়ে উপলক্ষে মেজবানির আয়োজন করেন। সেখানে আমন্ত্রিত অতিথিসহ অন্তত ৩০০ জনের আপ্যায়ন করা হয়। কিন্তু ইবাদত মোল্যার প্রতিপক্ষ সামাজিক দলের নেতা আজিবর রহমানসহ তার সমর্থকদের দাওয়াত না দেওয়ায় তারা ক্ষুব্ধ হয়।

এদিকে আজিবর রহমানের ফুফাত ভাই ওই গ্রামের কৃষক জামাল মোল্যা দাওয়াত পেয়ে সেখানে অংশ নেন। এতে আজিবর মাতবর আরও অপমানিত বোধ করে।

এ কারণে মঙ্গলবার সকালে আজিবর রহমান তার সামাজিক দলের সদস্য নুর ইসলাম ও ফারুকের নেতৃত্বে ১৫-২০ জনকে দিয়ে জামাল মোল্যাকে ধরে আনে। এরপর আজিবরের নিজের বাড়ির একটি গাছের সঙ্গে বেঁধে তাকে নির্যাতন করা হয়। এ সময় বাধা দিতে গেলে তারা জামালের বৃদ্ধ মা শেফালি, স্ত্রী রেশমাকে পিটিয়ে জখম করে।

খবর পেয়ে জামালের পক্ষে দাওয়াতে অংশগ্রহণকারীরা এগিয়ে এলে তাদের ওপর হামলা চালিয়ে অন্তত ১৫ জনকে পিটিয়ে আহত করা হয়। এদের মধ্যে ৯ জন মাগুরা ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

সদর থানার ওসি সিরাজুল ইসলাম বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত। নতুন করে সংঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

You might also like

advertisement